সোমবার, ১৮ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং ৪ঠা পৌষ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

রোহিঙ্গাদের কাছে ২ লাখ সিম বিক্রির অভিযোগ

AmaderBrahmanbaria.COM
সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৭
news-image

---

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গাদের কাছে ইতিমধ্যে অবৈধভাবে ২ লাখ সিম বিক্রি করা হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছে বাংলাদেশ মুঠোফোন গ্রাহক অ্যাসোসিয়েশন।

তারা বলছে, মোবাইল ফোন আপারেটরগুলো রোহিঙ্গাদের কাছে অন্তত ১০ লাখ সিম কার্ড এজেন্টেদের মাধ্যমে বিক্রির টার্গেট নিয়েছে।

সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে সংগঠনটি এ অভিযোগ করে। রোহিঙ্গাদের বিনামূল্যে টেলিকম সেবা প্রদান ও অবৈধ সিম বিক্রির অপরাধে অপারেটরদের শাস্তির দাবিতে এ মানববন্ধন করা হয় ।

মানববন্ধনে সংগঠনটির পক্ষ থেকে বলা হয়, বিভিন্ন গণমাধ্যমে রোহিঙ্গাদের অবৈধভাবে মুঠোফোন ব্যবহারের চিত্রটি ফুটে উঠেছে। রোহিঙ্গাদের আশ্রয় শিবিরগুলোতে মোবাইল ফোন আপারেটরগুলো স্থানীয় এজেন্টের মাধ্যমে এখন পর্যন্ত প্রায় ২ লাখ সিমকার্ড অবৈধভাবে বিক্রি করেছে। তাদের লক্ষ্য এখন ১০ লাখ। একটি সিমকার্ড ৫০০ থেকে ১ হাজার টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে রোহিঙ্গাদের কাছে।

এ সময় সংগঠনটির পক্ষ থেকে আশঙ্কা প্রকাশ করে বলা হয়, মিয়ানমার সরকারের গোয়েন্দা সংস্থাগুলো কৌশলে রোহিঙ্গাদের মাধ্যমে তথ্য সংগ্রহ করছে কি না সেই বিষয়টিও ক্ষতিয়ে দেখতে হবে।

সংগঠনটি ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণায়ের কাছে প্রশ্ন রেখে বলে, স্বল্পমূল্যে টেলিটকের বুথ থেকে রোহিঙ্গারা কথা বলতে পারবে। কিন্তু আমাদের প্রশ্ন হচ্ছে, অবৈধ সিমকার্ড বিক্রির অপরাধে প্রতি সিমের বিপরীতে ৫০ ডলার জরিমানার বিধানের কী হবে? তাই আইন অনুযায়ী অবৈধ অপারেটরদের বিরুদ্ধে জরিমানা বাবদ ৮০০ কোটি টাকা এবং অবৈধ সিমের কলের মূল্য ও রাষ্ট্রের নিরাপত্তা বিঘ্নের কারণে আপারেটরদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

এতে করে মোবাইল ফোন অপারেটরদের কাছ থেকে ১ হাজার ৫০০ কোটি টাকা সরকার আদায় করতে পারবে বলেও সংগঠনটির পক্ষ থেকে জানানো হয়।

মানববন্ধনে এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন সংগঠনটির সভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদসহ সংগঠনের সদস্যরা।