সোমবার, ১৮ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং ৪ঠা পৌষ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

স্ত্রীকে ‘অন্যায়ভাবে ক্ষমতায় আনার চেষ্টা’ করেছিলেন মুগাবে

AmaderBrahmanbaria.COM
নভেম্বর ২১, ২০১৭
news-image

---

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবের বিরুদ্ধে অভিশংসন প্রক্রিয়া শুরু করতে যাচ্ছে জিম্বাবুয়ের ক্ষমতাসীন দল জানু-পিএফ পার্টি।

অভিশংসন প্রস্তাবে মুগাবের বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ তোলা হবে তার মধ্যে অন্যতম স্ত্রী গ্রেসকে ‘অন্যায়ভাবে সাংবিধানিক ক্ষমতায় আনার চেষ্টা’ বলে জানিয়েছে বিবিসি।

মঙ্গলবার পার্লামেন্টে এসব অভিযোগ তুলে প্রেসিডেন্টকে অভিশংসনের প্রস্তাব করা হবে।

এই প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হতে দুইদিনের মতো সময় লাগতে পারে এবং বুধবারের মধ্যে প্রেসিডেন্ট মুগাবেকে অপসারণ করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন জানু-পিএফের জ্যেষ্ঠ সদস্য পল মানগওয়ানা।

এর আগে মুগাবের পদত্যাগের জন্য সময় বেঁধে দিয়েছিল তার নিজ দল জানু-পিএফ, সোমবার ওই সময়সীমা পার হয়ে যায়। এরপরই প্রেসিডেন্টকে অভিশংসিত করার প্রস্তুতি নিতে শুরু করে ক্ষমতাসীন দলটি।

জিম্বাবুয়ের সামরিক নেতৃবৃন্দ জানিয়েছেন, তারা মুগাবের ভবিষ্যতের বিষয়ে একটি ‘রোডম্যাপ’ তৈরি করেছেন এবং বহিষ্কৃত সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট এমারসন নানগাওয়া শিগগিরই দেশে ফিরতে পারেন।

গ্রেস মুগাবে এবং নানগাওয়া, উভয়কেই বর্ষীয়ান প্রেসিডেন্ট মুগাবের সম্ভাব্য উত্তসূরি হিসেবে হিসেবে বিবেচনা করছিল জিম্বাবুয়ের বিভিন্ন মহল। কিন্তু চলতি মাসের প্রথমদিকে নিজের ডেপুটিকে বরখাস্ত করেন মুগাবে। নিজের স্ত্রীকে ক্ষমতায় আনতেনেই তিনি এ কাজ করেছেন, জিম্বাবুয়ের অধিকাংশ মহলের এমনটি অনুভবের মধ্যেই দেশটির কর্তৃত্ব গ্রহণ করে সামরিক বাহিনী।

দেশটির শীর্ষ জেনারেল জানিয়েছেন, মুগাবে ও তার সাবেক ডেপুটির মধ্যে যোগাযোগ হয়েছে এবং শিগগিরই তারা পরস্পরের সঙ্গে আলোচনায় মিলিত হবেন।

রোববার জানু-পিএফ পার্টির বিশেষ কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠকে মুগাবেকে দলীয় প্রধানে পদ থেকে বহিষ্কার করে নানগাওয়াকে তার স্থলাভিষিক্ত করা হয়।

স্বাধীন হওয়ার পর থেকে গত ৩৭ বছর ধরে জিম্বাবুয়ে শাসন করে আসছেন সাবেক গেরিলা নেতা মুগাবে। জনপ্রিয়তা হারানো এই নেতাকে পদত্যাগের আহ্বান জানিয়েছিল জানু-পিএফ এবং সামরিক বাহিনী, কিন্তু তাদের আহ্বানে সাড়া দিতে অস্বীকার করেছেন তিনি।

-বিদেশ ডেস্ক