সোমবার, ২২শে জানুয়ারি, ২০১৮ ইং ৯ই মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

আট ব্যাংকের পরীক্ষায় বাদ পড়াদের পরীক্ষা ২০ জানুয়ারি

আমাদের ব্রাহ্মণবাড়িয়া
জানুয়ারি ১২, ২০১৮
news-image

আটটি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে ‘সিনিয়র অফিসার (সাধারণ)’ পদে নিয়োগে যারা পরীক্ষায় অংশ নিতে পারেননি, তাদের পরীক্ষা আগামী ২০ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে। ওই দিন রাজধানীর মিরপুরের হজরত শাহ আলী মহিলা কলেজে কেন্দ্রের ৫ হাজার ৬০০ বঞ্চিত প্রার্থীর ভর্তি পরীক্ষা নেয়া হবে বলে জানিয়েছে ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটি।

এর আগে আজ শুক্রবার আটটি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে ‘সিনিয়র অফিসার (সাধারণ)’ পদে সমন্বিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। রাজধানীর মিরপুরের হজরত শাহ আলী মহিলা কলেজে পরীক্ষা কেন্দ্রে পর্যাপ্ত আসন না থাকায় অনেকেই পরীক্ষায় অংশ নিতে পারেননি। পরীক্ষার্থীরা সবাই পরে ওই কলেজের মাঠে অবস্থান নেন।

জানা যায়, ১ হাজার ৬৬৩টি শূন্য পদের বিপরীতে আটটি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে ‘সিনিয়র অফিসার (সাধারণ)’ পদে সমন্বিত পরীক্ষা আজ অনুষ্ঠিত হয়। বেলা সাড়ে ৩টা থেকে বিকাল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত ছিল এ পরীক্ষা। কিন্তু পর্যান্ত সিট না থাকায় ওই কেন্দ্রের ৫ হাজার ৬০০ প্রার্থী পরীক্ষায় অংশ ‍নিতে পারেননি।

পরীক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, কলেজটিতে সিট প্লান না থাকায় মাত্র ৪০-৫০ জনের রুমে ১০০ থেকে ১৫০ জনের বসার ব্যবস্থা করা হয়। তারপরও সবার জন্য আসন দিতে পারেনি কলেজ কর্তৃপক্ষ।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কেন্দ্রটির অধ্যক্ষ ময়েজ উদ্দিন সাংবাদিকদের জানান, আমাদেরকে কর্তৃপক্ষ চিঠি দিয়ে জানিয়েছেন, ৪০ শতাংশ অনুপস্থিত ধরে আসনের ব্যবস্থা করতে। আমরা সেভাবেই করেছি। কিন্তু উপস্থিতি বেশি হওয়ায় এ সমস্যা হয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকে পরীক্ষা পরিদর্শনে আসা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দুজন শিক্ষক জানান, কখনো দেখিনি ৪০ শতাংশ অনুপস্থিত ধরে আসনের ব্যবস্থা করা হয়। আমরা কয়েক দিন আগে ওই কলেজের অধ্যক্ষের কাছে আসন ব্যবস্থার কথা জানতে চাইলে তিনি এ কথাটিই বলেছিলেন। তখন আমরা নিষেধ করেছিলাম। কিন্তু তিনি উল্টো আমাদের ওপর ক্ষেপে যান। আজ এই পরিস্থিতির জন্য এই কলেজের অধ্যক্ষ দায়ী।

এদিকে আজকের পরীক্ষার অব্যবস্থাপনা দেখে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এর সমালোচনার ঝড় চলছে। পরীক্ষাকে প্রহসন উল্লেখ উল্লেখ করে অনেকে গাড়ি ভাড়া ফেরত চেয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন।