বুধবার, ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

সাত সহজ উপায়ে প্রতিদিন টাকা জমান

news-image

আপনি আপনার প্রতিদিনের খরচ নিয়ে চিন্তিত! হাতে টাকা থাকলেই তা শেষ হয়ে যায়! দিন শেষে হাতে কিছুই থাকে না? এমন সব সমস্যা প্রতিদিন আপনাকে কুরে কুরে খাচ্ছে? তাহলে জেনে নিন এই সাতটি উপায়। যাতে করে আপনার প্রতিদিনের খরচ থেকে কিছু না কিছু সঞ্চয় থাকবে আপনার কাছে। দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়ার সৌজন্যে চলুন জেনে নিই সাতটি সহজ উপায়ের কথা।

১. সাপ্তাহিক খরচের হিসাব

আপনি আপনার সাপ্তাহিক খরচের একটা হিসাব রাখলে সপ্তাহ শেষে আপনার বুঝতে সুবিধা হবে যে আপনার খরচ কেমন হচ্ছে। আপনি সপ্তাহ শেষে খুঁজে বের করতে পারবেন যে কোথায় আপনার খরচটা বেশি হচ্ছে। সে অনুযায়ী আপনি কিছু টাকা সঞ্চয় করতে পারেন।

২. বাজেট অনুসরণ করুন

আপনি আপনার বাজেটকে নজরদারিতে রাখার জন্য ব্যবহার করতে পারেন এটিএম কার্ড। আপনার ক্যাশ টাকার চেয়ে কার্ডের টাকার পরিমাণ বেশি রাখুন। এতে করে আপনার খরচ কম হবে। আপনি হুট করে অপ্রয়োজনীয় জিনিস কেনা থেকে বিরত থাকতে পারবেন। আপনার এক হাজার টাকা দিয়ে একটা ফ্যাশনেবল জিনিস কেনার চেয়ে মাস শেষে থাইল্যান্ড ট্রাভেলের জন্য এ টাকা যোগ করতে পারবেন অনায়েসে।

৩. ধূমপানের মতো অভ্যাস ত্যাগ করুন

আপনার যদি ধূমপানের মতো বাজে নেশা থাকে, তবে তা ত্যাগ করুন। নতুন বছর উপলক্ষে আপনার এ অভ্যাস ত্যাগের কারণে আপনি পাবেন শারীরিক সুস্থতা এবং সঙ্গে পাবেন পকেটেরও সুস্থতা।

৪. ব্যবহার হয় না এমন সাবস্ক্রিপশন বাদ দিন

আপনি যদি আপনার একদিনের ১০ ঘণ্টা সময় অফিসে কাটান, তবে আপনার বাসার ইন্টারনেট কানেকশনের জন্য আপনি খরচ কমিয়ে আনতে পারেন বা আপনার মোবাইলে ডাটা প্যাকটি না কিনেও চলতে পারেন। এতে করে আপনি অযথা ফেসবুকিং বা ইনস্টাগ্রামে সময় না দিয়ে অন্য কোথাও সময়টা কাজে লাগাতে পারবেন।

৫. থামুন এবং কেনার আগে ভাবুন

আপনি যে জিনিসটা কিনতে যাচ্ছেন, তার প্রয়োজন আছে কি না, তা আগে ভাবুন। এখন আপনি বলতেই পারেন যে শখের জিনিস তো যেকোনো সময় কেনা যায়। সে ক্ষেত্রে আপনি আপনার সামনের সপ্তাহের খরচ সম্পর্কে ভাবুন। এমন কোনো অতিরিক্ত খরচ আপনার আছে কি না, তা হিসাব করে টাকাটা খরচ করুন।

৬. কোয়ালিটি দেখে কিনুন, কোয়ান্টিটি নয়

আপনি যদি কোয়ালিটি পণ্য কেনেন, তবে আপনার খরচ কমে যায়। ভাবছেন কীভাবে, এখানে তো খরচ বেশি? খরচ বেশি হলেও এই পণ্য আপনাকে যে সার্ভিস দেবে, এতে করে বারবার এর পেছনে আপনার খরচ করতে হবে না। আপনার টাকা ও শ্রম দুইটাই বেচে যাবে।

৭. সাজগোজ বাসায় করুন

আপনি আপনার বিউটি ট্রিটমেন্ট যদি বাসায় করতে পারেন, তাহলে আপনার অনেক সময় ও টাকা বেচে যাবে। আপনি পাবেন ন্যাচারাল কিছু, যা আপনার চেহারার সঙ্গে সঙ্গে মনকেও রাখবে সতেজ ও সুন্দর।

Print Friendly, PDF & Email