মঙ্গলবার, ২২শে মে, ২০১৮ ইং ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

তত্ত্বাবধায়ক সরকার গোরস্থানে গেছে, আসবে না : নাসিম

news-image

রাজশাহী প্রতিনিধি : তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে আগামী নির্বাচন হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই জানিয়ে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪-দলীয় জোটের মুখপাত্র ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, নির্বাচন আসছে। আবার চক্রান্ত শুরু হয়েছে। নতুন ফর্মুলা দেওয়া হচ্ছে যে, তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া নির্বাচন করবো না। ওই ফর্মুলায় কোনো কাজ হবে না। তত্ত্বাবধায়ক সরকার আর ফিরে আসবে না, আসার কোনো সম্ভাবনাও নেই। কারণ তত্ত্বাবধায়ক সরকার মরে গেছে, গোরস্থানে চলে গেছে।

মঙ্গলবার বিকালে রাজশাহী নগরীর সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে মহানগর আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে নির্বাচন হলে নিরপেক্ষ নির্বাচন হয়। আমরা হারি বা জিতি, নির্বাচন সুষ্ঠু করি। রংপুরে আমরা হেরে গেছি, মেনে নিয়েছি। বিএনপিকে বলতে চাই- নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত হন। খেলা হবে মাঠে। আমরা নৌকা নিয়ে মাঠে থাকবো। খালেদা জিয়ার দলকে বলবো- দয়া করে এবার মাঠ ছেড়ে পালিয়ে যাবেন না। আমরা ফাঁকা মাঠে গোল দিতে চাই না। এবার খেলে মাঠে গোল দিতে চাই।

বিএনপি এবার নির্বাচনে না এলে তাদের ‘বাটি চালান’ দিয়েও খুঁজে পাওয়া যাবে না মন্তব্য করে ১৪-দলীয় জোটের মুখপাত্র বলেন, মানুষ আন্দোলন চায় না। হরতাল-মিছিল চায় না। অবরোধ চায় না। প্রমাণ হলো- বেগম জিয়া কারাগারে আছেন। আমরা তাকে জেলে পাঠাইনি। জেলের রাজনীতি আমরা করি না। আদালত রায় দিয়েছেন। তিনি জেলে গেছেন। খালেদা জিয়ার মামলা আমরা করিনি। ওই তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে দুদক তার বিরুদ্ধে মামলা করেছিল। আদালতে বিচার হয়েছে।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম আরও বলেন, বিচারের বাণী নীরবে-নিভৃতে কেঁদেছে ২১ বছর। বেগম খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনিদের প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন। আজ তার দলের নেতারা ন্যায় বিচার চান। খালেদাকে সাজা আমরা দেইনি। তাকে মুক্তিও আমরা দিতে পারব না। যদি মুক্তি পান, আদালতে পাবেন। আমাদের কিছু করার নেই।

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও রাজশাহী মহানগরের সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের সভাপতিত্বে জনসভায় দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নুরুল ইসলাম ঠাণ্ডু, সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য আখতার জাহান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ প্রমুখ বক্তব্য দেন।

মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার জনসভা পরিচালনা করেন।

Print Friendly, PDF & Email