বৃহস্পতিবার, ১৬ই আগস্ট, ২০১৮ ইং ১লা ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

মাদকের চোরাচালান রোধে দুই মাসের জন্য কক্সবাজারে মোবাইল ব্যাংকিং বন্ধের প্রস্তাব র‍্যাবের

news-image

নিজস্ব প্রতিবেদক : কক্সবাজারে মাদকের চোরাচালান রোধে দুই মাসের জন্য ওই এলাকার মোবাইল ব্যাংকিংয়ের লেনদেন বন্ধ রাখার প্রস্তাব দিয়েছেন র‍্যাবের মহাপরিচালক বেনজির আহমেদ। তিনি বলেন, মাদকের চোরাচালানের জন্য ওই এলাকায় প্রতিদিন মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে কোটি টাকা লেনদেন হয়। এটি বন্ধ করা গেলে মাদক নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে। আজ রোববার বিকেলে কারওয়ান বাজারে র‍্যাবের মিডিয়া সেন্টারে মাদকের বিরুদ্ধে নির্মিত তথ্যচিত্রের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘আমরা যেমন জঙ্গিদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছিলাম, তেমনি মাদকের বিরুদ্ধেও যুদ্ধ ঘোষণা করেছি। এই যুদ্ধে আমাদের জয়ী হতেই হবে। মাদক নিয়ন্ত্রণ করতেই হবে, এটি একটি বড় চ্যালেঞ্জ।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, দেশের জেলগুলোতে ৩৭ হাজার বন্দী রাখার জায়গা আছে। কিন্তু এখন সেখানে ৯০ হাজারের বেশি বন্দী আছেন। ৪৩ হাজার মাদক ব্যবসায়ী বা মাদক আইনে দণ্ডিত ব্যক্তি কারাগারে আছেন। এতেই বোঝা যায়, মাদক কতখানি ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। বক্তব্য শেষে ‘চল যাই যুদ্ধে মাদকের বিরুদ্ধে’ শিরোনামে তথ্যচিত্রের উদ্বোধন করেন মন্ত্রী।

র‍্যাবের মহাপরিচালক বেনজির আহমেদ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী ৩ মে আমাদের ডেকে মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান চালাতে নির্দেশ দিয়েছেন। গত ৮০ দিনে আমরা ১০২ কোটি টাকার মাদক উদ্ধার করেছি। ৫ হাজার ৮৭৭ জনকে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দিয়েছি। ১ হাজার ৭১৩ জনের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা করা হয়েছে। ৩৭টি ঝুঁকিপূর্ণ অভিযানে ৪৭ জন মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে।’ মাদক নিয়ন্ত্রণে তিনি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে কক্সবাজারে দুই মাসের জন্য মোবাইল ব্যাংকিং বন্ধ রাখার প্রস্তাব করে বেনজির আহমেদ বলেন, এই এলাকায় মাত্র ২৩ লাখ মানুষ বসবাস করে। কিন্তু প্রতিদিন এখানে কোটি টাকার লেনদেন হয় মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে। এটি নিয়ন্ত্রণ করা গেলে মাদকের চোরাচালান কমে আসবে বলে মনে করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে পুলিশের আইজিপি জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, মাদক একটি সামাজিক সমস্যা। এটি কেবল আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সমাধান করতে পারবে না। এ সমস্যা সামাজিকভাবে মোকাবিলা করতে হবে। শুধু অভিযানের ওপর নির্ভর করলে চলবে না, এটি রোধে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জন নিরাপত্তা বিভাগের সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দীন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিব ফরিদ উদ্দিন আহম্মদ চৌধুরী, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন আহমেদ।