বৃহস্পতিবার, ১৬ই আগস্ট, ২০১৮ ইং ১লা ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

আটক সেই দুই কুকুর

news-image

ডেস্ক রিপোর্ট : নারায়ণগঞ্জ শহরের জামতলায় কুকুর লেলিয়ে দিয়ে রিকশাচালক আবদুর রাজ্জাককে নির্যাতনের ঘটনার ছয়দিন পেরিয়ে গেলেও ঘটনার মূলহোতা রুপুকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। তবে বৃহস্পতিবার দুপুরে রুপুমের বিদেশি দুই কুকুর আটক করেছে পুলিশ।

গত শুক্রবার রাতে জামতলা এলাকার আবদুর রহিমের বাড়ির প্রহরী মহিউদ্দিনের কাছে পাওনা ৭ হাজার টাকা আনতে গেলে বাড়ির মালিকের ছেলে মাহাবুবুর রহমান রুপু তার বাড়ির প্রহরী মহিউদ্দিনের পক্ষ নিয়ে পাওনাদার রাজ্জাককে মারধর করে বাড়ির ছাদে নিয়ে যায়। সেখানে পোষা বিদেশি দুটি কুকুরের ঘরে রাজ্জাকে ঢুকিয়ে দেয়া হয়। কুকুরগুলোর হামলায় রাজ্জাক গুরুতর আহত হলে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ফতুল্লা মডেল থানার এসআই ফায়জুর আসামি রুপুর বাড়িতে গিয়ে বিদেশি কুকুর দুটি আটক করে রুপুর মা শিউলী বেগমের হেফাজতে রেখে আসেন।

এসআই ফায়জুর বলেন, ওই বাড়ির ছাদে বিরল প্রজাতির চিল ও বাজ পাখি দেখা গেছে। এসব পাখি পোষার কোনো অনুমতি নেয়া হয়নি। তাই বন্যপ্রাণি সংরক্ষণ আইনে রুপুর বিরুদ্ধে আরেকটি মামলা হবে। রুপুর বাড়ি থেকে আটক করা কুকুর দুটি ইংল্যান্ডের ‘রড হুইলার’ জাতের। এছাড়া বাজ ও চিলগুলো প্রায় বিলুপ্ত প্রজাতির।

এদিকে ঘটনার শিকার আবদুর রাজ্জাকের শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটেছে। বুধবার নারায়ণগঞ্জ দেড়শ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের নার্সরা তাকে ইনজেকশন পুশ করতে অপারগতা প্রকাশ করে ডাক্তারের মাধ্যমে ইনজেকশন পুশ করতে পরামর্শ দেন। সেইসঙ্গে রাজ্জাকের ব্যবহৃত থালা, বাটিসহ অন্যান্য ব্যবহার্য জিনিসপত্র আলাদা করে দিতেও পরামর্শ দেয়া হয় তার স্ত্রী শেফালীকে।

এ ঘটনার ছয়দিন পেরিয়ে গেলেও আসামিদের কেউ গ্রেফতার না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন স্থানীয়রা। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এলাকাবাসীর কেউ কেউ বলেছেন, রুপু এলাকার চিহ্নিত মাদক সেবী ও ব্যবসায়ী। বেশ কয়েক বছর আগে রুপু অস্ত্রসহ ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছিল। বর্বর এই ঘটনার পর বাড়ির মালিক আবদুর রহিম বাড়ির প্রহরী মহিউদ্দিনকে অন্যত্র সরে যেতে সহায়তা করেন।

ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের ওসি শাহ মঞ্জুর কাদের বলেন, আজ না হয় কাল আসামিদের গ্রেফতার হতেই হবে। পুলিশ আসামিদের গ্রেফতারের জন্য কাজ করছে। উৎসঃ jagonews24