বৃহস্পতিবার, ২২শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং ৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ প্রতিযোগিতায় সুন্দরীদের ভিড়

news-image

অনাড়ম্বরপূর্ণ আয়োজনে শুরু হয়ে গেল বিশ্বসুন্দরী খোঁজার প্রতিযোগিতা ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ ২০১৮’। ১৬ সেপ্টেম্বর থেকে এফডিসিতে শুরু হয়েছে অডিশন রাউন্ডের কাজ। এমনটাই জানিয়েছে আয়োজক প্রতিষ্ঠান অন্তর শোবিজ।

অন্তর শোবিজের পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়, এবারের আয়োজনে বিচারক হিসেবে থাকছেন জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী শুভ্রদেব, অভিনেত্রী তারিন আহমেদ, অভিনেতা খালেদ সুজন, মডেল ইমি, ব্যরিস্টার ফারাবী। অডিশন রাউন্ড থেকে পুরো প্রতিযোগিতার বিচারকার্য তারাই পরিচালনা করবেন। তবে গ্র্যান্ড ফিনালেতে আইকন বিচারকরা যোগ দেবেন।

অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহের মধ্যেই মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশের গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠিত হবে। বাংলাদেশের চূড়ান্ত বিজয়ী ৭ ডিসেম্বর চীনে মূল পর্বে যোগদানের উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করবেন।

চীনে চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় যাওয়ার আগে প্রায় তিন মাসব্যাপী নির্বাচিত প্রতিযোগীকে গ্রুমিং করানো হবে। যেন তিনি সাফল্যের সঙ্গে বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করতে পারেন। এবারের অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করছেন ডিজে সনিকা। খুব শিগগিরই এটিএন বাংলায় এর প্রচার শুরু হবে এই প্রতিযোগিতা নিয়ে নির্মিত অনুষ্ঠান।

আয়োজক প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়, এরই মধ্যে আবেদনকারীর সংখ্যা ত্রিশ হাজার ছাড়িয়েছে। এবারের আয়োজনটির টেলিভিশন পার্টনার হিসেবে আছে এটিএন বাংলা।

আয়োজন প্রসঙ্গে এটিএন বাংলা চ্যানেলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. মাহফুজুর রহমানের উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়, ‘এমন একটি বড় প্রতিযোগিতার সঙ্গে এটিএন বাংলা যুক্ত হওয়ায় ভালো লাগছে। আমি এ আয়োজনের উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করি।’

অন্তর শোবিজের চেয়ারম্যান স্বপন চৌধুরী বলেন, ‘গোপনীয়তা ও নীরবে করার মতো কিছু নেই। মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে গেলেই আবেদন আর রেজিস্ট্রেশন সংক্রান্ত প্রচারণা চোখে পড়বে। গতবার মিথ্যা তথ্য দেওয়ার কারণে বিভ্রান্তি ছড়িয়েছিল। এবার কেউ মিথ্যা তথ্য দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করলে আমরা ১০ লক্ষ টাকা জরিমানার বিধান রেখেছি। পাশাপাশি আমাদের টিম এবং বিভিন্ন সংস্থার মাধ্যমে তথ্য যাচাই বাছাই করছি। এটা খুব আনন্দের যে অভিভাবকরা এসে তাদের মেয়েকে নিবন্ধন করাচ্ছেন। স্পন্সররা এগিয়ে এসেছেন। সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা। আর যার কথা না বললেই নয়, তিনি অন্তর শোবিজের এমডি নাসরিন চৌধুরী। অনুষ্ঠানের সাফল্য এবং স্বচ্ছতার পেছনে তার অবদানই সবচেয়ে বেশি।’