বুধবার, ১৭ই অক্টোবর, ২০১৮ ইং ২রা কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ডু অর ডাই ম্যাচে নামছে বাংলাদেশ

news-image

স্পোর্টস ডেস্ক: শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দারুণ এক জয় দিয়ে শুরু। এরপরের ম্যাচেই পাল্টে গেলো পুরো দৃশ্য। আফগানিস্তানের কাছে পরাজয়ের পর ভারতের কাছেও একই অবস্থা। প্রথম ম্যাচে ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং তিন ইভেন্টেই টাইগারদের পারফরম্যান্স ছিল দেখার মতো। যার কারণে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বিশাল ব্যবধানের জয় পায় লাল-সবুজের জার্সিধারীরা।

কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচ থেকে যে কী হল কোনও ইভেন্টেই ঠিক মতো পেরে উঠছে না। যার ফলশ্রুতিতে প্রথমে আফগানিস্তান ও পরে ভারতের কাছে পরাজয়। আজকের ম্যাচটি ডু অর ডাই ম্যাচ। যারাই হারবে টুর্নামেন্ট থেকে একরকম বিদায় বলা যায়। কঠিন মুহূর্তে বাংলাদেশের ঘুরে দাঁড়ানোর নজির রয়েছে। কিন্তু কন্ডিশন ও দলের মনোবল কোনটাই অনুকূলে নয়।

তামিম ইনজুরি আক্রান্ত হয়ে ফেরত আসার পর যাচ্ছে তাই অবস্থা ওপেনিংয়ে। যার জন্য তিন ম্যাচ পর সৌম্য ও ইমরুলকে উড়িয়ে নেয়া হল বাংলাদেশ থেকে। তারা আজকের ম্যাচে খেলবেন কিনা তা সময়ই বলে দিবে। যদি খেলেন তাহলে লম্বা জার্নির ধকল সয়ে ম্যাচে কতটুকু সফল হবেন সেটাই দেখার বিষয়।

সুপার ফোরের দ্বিতীয় ম্যাচে আজ আবুধাবীর শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৫টায় খেলাটি অনুষ্ঠিত হবে। ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে মাছরাঙা টেলিভিশন।

পরিসংখ্যান মতে বাংলাদেশ আফগানিস্তানের সঙ্গে ৬টি ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে। উভয়েরই জয়ের পাল্লা সমান সমান। কিন্তু এশিয়া কাপের রেকর্ড বাংলাদেশের বিপক্ষেই কথা বলছে। এশিয়া কাপে উভয় দল দুটি ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে। দুটিতেই বাংলাদেশকে হারিয়েছে আফগানিস্তান।

২০১৪ সালে প্রথমবারের মতো এশিয়া কাপে মুখোমুখি হয় দল দুটি। সেখানে বাংলাদেশকে ৩২ রানে পরাজিত করে যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশটি। দ্বিতীয় যাত্রায় এবারের আসরে দেখা হয় দেশ দুটির। এবার পরাজয় আরো বেশি রানে। অর্থাৎ ১৩৬ রানের পরাজয় বাংলাদেশের। তাই এ ম্যাচে জিতে টুর্নামেন্টে টিকে থাকা পাশাপাশি নিজেদের মনোবল ফিরে পেতে জয়ের বিকল্প নেই বাংলাদেশের।

ভারতের বিপক্ষে পরাজয়ের পর অধিনায়ক মাশরাফি টুর্নামেন্টে এখনো ফাইনালের আশা দেখছেন। কিন্তু তা সম্ভব ব্যাটসম্যানরা জ্বলে উঠলেই। মাশরাফি কোনভাবেই পরাজয়ের জন্য বোলারদের ওপর দায় চাপাতে নারাজ। তার মতে এখনও পর্যন্ত সন্তোষজনক পারফরম্যান্স দেখিয়েছে বোলাররাই।
আজকের ম্যাচে বাংলাদেশের দামাল ছেলেরা ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং তিন ইভেন্টেই একসঙ্গে জ্বলে উঠবে এটাই দেশবাসীর প্রত্যাশা। নতুবা ফাইনাল খেলার দরজা আর খুলবে না বাংলাদেশের জন্য।