বুধবার, ১৪ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং ৩০শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ধাক্কা সামলে ঘুরে দাঁড়াল পাকিস্তান, উল্টো চাপে অজিরা

news-image

স্পোর্টস ডেস্ক : দিনের শুরুতেই ঘূর্ণিঝড়ের আঘাত হেনে পাকিস্তানের ইনিংসকে ধ্বংসস্তূপে পরিণত করেছিলেন অজি স্পিনার নাথান লায়ন। তবে এরপরই অবিশ্বাস্যভাবে ঘুরে দাঁড়ায় পাকিস্তান। প্রথম ইনিংসে ২৮২ রানের সংগ্রহ পাওয়ার পর জবাব দিতে নামা অজিদের উল্টো চেপে ধরে দিন শেষ করেছে সরফরাজবাহিনী।

আবুধাবিতে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম দিনে বল হাতে স্পিন ঘূর্ণির পসরা সাজিয়ে পাকিস্তানের প্রথম ৫ ব্যাটসম্যানের ৪ জনকে একাই কুপোকাত করেন অজি স্পিনার নাথান লায়ন। মাত্র ৬ বলের ব্যবধানে পাকিস্তানের আজহার আলী (১৫), হারিস সোহেল (০), আসাদ শফিক (০) ও বাবর আজমের (০) উইকেট তুলে নেন লায়ন।

৮০ টেস্টের ক্যারিয়ারে ৩১৪ উইকেট হলো লায়নের, যা তাকে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে চতুর্থ টেস্ট উইকেট শিকারির তকমা এনে দিয়েছে। তার আগে আছেন তিন অজি কিংবদন্তি ডেনিস লিলি (৩৫৫), গ্ল্যান ম্যাগ্রাহ (৫৬৩) ও শেন ওয়ার্ন (৭০৮)।

বাকি উইকেটটি মিচেল স্টার্কের। ওপেনার মোহাম্মদ হাফিজকে (৪) লাবুসাগনের ক্যাচে পরিণত করেন এই ফাস্ট বোলার। এরপর মাত্র ৫৭ রানেই ৫ উইকেট হারিয়ে ধুঁকতে থাকা পাকিস্তানকে পথ দেখান ওপেনার ফখর জামান। প্রায় একক প্রচেষ্টায় দলের স্কোর দুইশ পার করেন তিনি।

দলীয় ২০৪ রানে তিনি যখন বিদায় নেন তার নামের পাশে ৮ চার ও ১ ছক্কায় ৯৪ রানের এক ঝলমলে ইনিংস লেখা হয়। তবে তার দুর্ভাগ্য যে অভিষেক সেঞ্চুরি থেকে মাত্র ৬ রান দূরে থাকতে লাবুসাগনের বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়তে হয় তাকে।

এরপর বিল্লাল আসিফও (১২) লাবুসাগনের বলে উইকেটরক্ষক পেইনের হাতে ক্যাচ তুলে বিদায় নিলে পাকিস্তানের অধিনায়ক দায়িত্ব নিজের হাতে তুলে নেন। কিছুটা আগ্রাসী ব্যাটিং করে আগেই ফিফটি তুলে নেওয়া সরফরাজও ঠিক ৯৪ রানেই আউট হয়ে যান। ১২৯ বলে ৭ চারে সেঞ্চুরি থেকে ৬ রান দূরে থেমে যাওয়া এই ইনিংস শেষ হয় লাবুসাগনের বলে পিটার সিডল ক্যাচ নিলে। দলের স্কোর তখন ২৪৭/৮। টেল এন্ডারদের ছোট ছোট ইনিংসে ভর করে শেষ পর্যন্ত ২৮২ রানে থামে পাকিস্তানের প্রথম ইনিংস।

বল হাতে শুরুতে ৪ উইকেট নেওয়ার পর আর কোনো উইকেট পাননি লায়ন। লাবুসাগনে পেয়েছেন ৪৫ রানে ৩ উইকেট, ৩৭ রানে ২ উইকেট পেয়েছেন স্টার্ক আর বাকি উইকেটটি তুলে নিয়েছেন মিচেল মার্শ।

পাকিস্তানের ২৮২ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে নিজেদের প্রথম ইনিংসের শুরুতেই ২ উইকেট হারিয়ে বসেছে অস্ট্রেলিয়া। উসমান খাজা (৩) ও নাইট ওয়াচম্যান পিটার সিডলকে (৪) আউট করেছেন মোহাম্মদ আব্বাস। এই দুই উইকেট নিয়ে মাত্র ১০ম ম্যাচেই নিজের ৫০তম টেস্ট উইকেট পাওয়া হয়ে গেল আব্বাসের, পাকিস্তানের হয়ে টেস্ট ম্যাচে যা যুগ্মভাবে দ্বিতীয় দ্রুততম।