বুধবার, ১৪ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং ৩০শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বেপরোয়া ভুয়া ডিবি!

news-image

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে গোয়েন্দা পুলিশ ও র‌্যাব পরিচয়ে প্রতারকচক্রের তৎপরতা বেড়েছে। ভুয়া পরিচয়ে ছিনতাই, ডাকাতি ও অপহরণসহ নানা অপরাধমূলক কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়ছেন বেশ কিছু প্রতারক চক্র। এদের হাত থেকে কেউই রেহাই পাচ্ছেন না।সোমবার (২২ অক্টোবর) রাজধানীর উত্তরায় অস্ত্র-গুলি ও মাইক্রোবাসসহ ভুয়া ডিবির ৬ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। উত্তরা সেক্টর-১০ রানা ভোলা এলাকায় ডিবি পুলিশ পরিচয়ে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে তাদের গ্রেফতার করে উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশ। এ সময় ভুয়া ডিবি পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলিও চালায়।

এসময় তাদের কাছে ১টি আগ্নেয়াস্ত্র, ১টি ম্যাগাজিন, ১ রাউন্ড গুলি, ওয়ারলেস সেট (ওয়াকিটকি), হাতুড়ি, লিভার, কসটেপ ও ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত ১টি নোয়া মাইক্রোবাস পাওয়া যায়।ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ জানায়, ভুয়া ডিবি সদস্য গ্রেফতারের অভিযানকালে গ্রেপ্তারকৃত শামীম হোসেন পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। এতে পাঁচ পুলিশ সদস্য আহত হন। পরে পুলিশও পাল্টা গুলি ছুঁড়ে। উভয়ের গোলাগুলিতে ভুয়া ডিবি শামীম আহত হলে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতদের কাছ থেকে উদ্ধারকৃত নোয়া মাইক্রোবাস ব্যবহার করে বিভিন্ন সময় ঢাকা মহানগরসহ বিভিন্ন স্থান থেকে যাত্রী উঠিয়ে নির্জন স্থানে নিয়ে যায় প্রতারক চক্র। তারপর তাদের সাথে থাকা অস্ত্র-শস্ত্র, হাতুড়ি, লিবার, ওয়ারলেস হ্যান্ডসেট, ভুয়া ডিবি জ্যাকেট, কালো কসটেপসহ ভয়ভীতি দেখিয়ে ডাকাতি-ছিনতাই করত তারা।

প্রথমে তারা ব্যবসায়ী অথবা সম্ভ্রান্ত কোনো যাত্রীকে টার্গেট করে। এরপর ওই যাত্রীকে কৌশলে তাদের সাথে থাকা নোয়া গাড়িতে তোলে। গুলিস্তান থেকে মাওয়াঘাট অথবা আব্দুল্লাহপুর বা গাবতলী হতে আমিন বাজার, সাভার রাস্তায় তারা এই কাজগুলো করে থাকে। যাত্রীকে গাড়িতে তুলেই তার চোখ-মুখ কসটেপ দিয়ে আটকে দেয়া হয় এবং চোখে কালো চশমা পরিয়ে দেয়া হয়। তারপর তাদের অস্ত্রের ভয় দেখায় এবং শারীরিক আঘাত করে সঙ্গে থাকা টাকা, মোবাইল ও ব্যাংক এটিএম কার্ডে থাকা টাকা উত্তোলন করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

এর দুদিন আগে গত ২০ অক্টোবর শনিবার সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে রবিউল করিম ঠান্ডু (৫২) নামের এক আদম ব্যবসায়ীকে ডিবি পরিচয়ে জোরপূর্বক মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যাওয়ার সময় এলাকাবাসী সড়কে বেড়িকেড দিয়ে মাইক্রোবাসসহ ৬ ভুয়া ডিবি পুলিশকে আটক করে গণধোলাই দেয়। খবর পেয়ে শাহজাদপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৬ ভুয়া ডিবি পুলিশকে আটক ও মাইক্রোবাসটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

সূত্র জানায়, অপহরণ হওয়া রবিউল করিম ঠান্ডু (৫২) উপজেলার হাবিবুল্লাহ নগর ইউনিয়নের শ্রীফলতলা গ্রামের খাজা নাজিম উদ্দিনের ছেলে। গত শনিবার বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে বেলতৈল ইউনিয়নের মুলকান্দি বাজার থেকে তাকে অপরহণ করা হয়। পরে শ্রীফলতলা বাজারে এলাকাবাসী টের পেয়ে বেড়িকেড দেয়। এসময় তারা ওই ব্যবসায়ীকে উদ্ধার করে।

ঘটনার দিন বিকালে মুলকান্দি বাজারের একটি চায়ের দোকানে বসে চা খাচ্ছিলেন। এসময় একজন অপরিচিত লোক তার কাছে এসে বলে আপনাকে স্যার ডাকে। আমি যেতে না চাইলে আরও কয়েকজন লোক এগিয়ে এসে বলে আমরা ডিবির লোক আপনার সঙ্গে কথা আছে। এ বলেই জোর করে তারা হাত ধরে টেনে নিয়ে যায় একটি সাদা রঙের মাইক্রোবাসের কাছে (ঢাকা মেট্রো-চ-১৫-৮৫০৩)। এরপর ধাক্কা দিয়ে মাইক্রোবাসে তুলে ডালা আটকিয়ে দিয়েই গাড়ি চালাতে শুরু করে। এসময় বাঁচাও-বাঁচাও বলে চিৎকার শুরু করে। পরে এলাকার লোকজন খবর পেয়ে তাদের আটক করে।

এ ঘটনার পর শাহজাদপুর থানার ওসি খাজা গোলাম কিবরিয়া সাংবাদিকদের বলেন, নিজেদের মধ্যে টাকা-পয়সার ঝামেলা নিয়ে এ ঘটনা ঘটেছে। কেউ মামলা না করায় আটককৃতদের নামে একটি জিডি করে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়েছে। বাদীপক্ষকে অনেকবার বলার পরও কেউ আসেনি তাই মামলা হয়নি।
গত ১১ জুন নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) পরিচয় দিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার সময় দুই ভুয়া ডিবি পুলিশকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রূপগঞ্জ থানা পুলিশ জানায়, পূর্বাচল উপ-শহরের ভোলানাথপুর এলাকায় ঘুরতে আসা কয়েকজনকে আটক করে তাদের কাছে নিজেদের জেলা গোয়েন্দা পুলিশ পরিচয় দেয়। এসময় তারা বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখিয়ে মোটা অংকের টাকা দাবি করে। খবর পেয়ে রূপগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে দুইজনকে আটক করে। এ সময় বাকিরা পালিয়ে যায়।পুলিশ জানায়, রাজধানীর শাহ আলীর নবাবের বাগ উত্তরপাড়া বেড়িবাঁধ এলাকায় অভিযান চালিয়ে অস্ত্র-গুলি, মাইক্রোবাসসহ ভুয়া ডিবি গ্রেফতার করেন। এ সময় তাদের কাছ থেকে ১টি বিদেশি রিভলবার, ২টি গুলি, ১টি ডিবি জ্যাকেট, ১ জোড়া হ্যান্ডকাপ, ১টি ওয়ারলেস সেট, ১টি লাঠি ও ১টি মাইক্রোবাস উদ্ধার করা হয়।