শুক্রবার, ১৬ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং ২রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

সময়ে কাজ না করতে পারলেই মূত্রপান, বেত্রাঘাত!

news-image

বেঁধে দেওয়ার মধ্যে শেষ করতে না পারলেই বেত্রাঘাত, জোর করে মূত্র পান ও পোকামাকড় খাওয়ানো হয়।একটি চীনা কোম্পানিতে শ্রমিক নির্যাতনের এই চাঞ্চল্যকর খবর সামনে নিয়ে এলো দেশটির সরকারি সংবাদ মাধ্যম।নির্যাতনের এখানেই শেষ নয়। মাথা ন্যাড়া করে দেওয়ার পাশাপাশি কমোডে মুখ ঢুকিয়ে সেই পানি খেতে বাধ্য করা হত শ্রমিকদের। আর এই সমস্ত শাস্তিই দেওয়া হত সবার সামনে, প্রকাশ্যে। দক্ষিম পশ্চিম চীনের গুইঝোউ প্রদেশের একটি গৃহসজ্জা সামগ্রী বানানোর কারখানায় এই অত্যাচার চালানো হত বলে জানা গিয়েছে চীনের সোশ্যাল মিডিয়া থেকে। সেখানেই সরকারি মাধ্যমে

অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে কয়েক জন কর্মী কাজ ছেড়ে দিয়েছিলেন। তাদের কাছ থেকেই প্রথম জানা যায় নির্যাতনের এই ভয়াবহ ঘটনা। অত্যাচারের পাশাপাশি পান থেকে চুন খসলেই করা হত জরিমানা। যদিও অধিকাংশ কর্মীই নির্যাতন সহ্য করে কাজ করে যেতেন বলে জানিয়েছেন কাছ ছেড়ে দেওয়া কর্মীরা। কারণ, এটাই নিয়তি বলে মেনে নিতেন তারা।এই ভয়াবহ ঘটনা সামনে আসার পরই অবশ্য ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে চীনা প্রশাসনের তরফে। কোম্পানির তিন জন ম্যানেজারকে পাঁচ থেকে দশ দিনের জন্য কারাদণ্ডের নির্দেশ দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

চীনের শ্রমিকদের দূরবস্থা নিয়ে বরাবরই সরব পশ্চিমী সংবাদ মাধ্যম ও বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থাগুলি। বেশি সময় ধরে কাজ করানো, কম বেতন দেওয়া, ছোট্ট ঘুপচি ঘরে গাদাগাদি করে শ্রমিকদের রাখা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে বিভিন্ন সময়। গুইঝোউ প্রদেশের এই অত্যাচারের ঘটনা প্রকাশ্যে আসায় নিশ্চিত ভাবেই আরও জোরাল হবে সেই সব প্রশ্ন।

এ জাতীয় আরও খবর

চলতি সপ্তাহে এশিয়ার সবচেয়ে বড় সম্মেলন এসোসিয়েশন অব সাউথ এশিয়ান নেশনসে (আসিয়ান) যোগ দেননি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এতে গুরুত্ব বেড়েছে পুতিনের। ব্লুমবার্গ এক প্রতিবেদনে জানায়, সিঙ্গাপুরে এবার আসিয়ানের ৩৩ তম সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ট্রাম্পের পরিবর্তে এতে যোগ দিয়েছেন দেশটির ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। ফলে এশিয়ার বড় দেশগুলোর কাছে পুতিন বেশি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছেন। সম্মলেন শেষে তোলা গ্রুপ ফটোতে দেখা গেছে, আয়োজক দেশ সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী লি হাসিয়েন লংয়ের ঠিক পাশেই দাঁড়িয়েছেন পুতিন। আর অন্যপাশে একজনের পরে দাঁড়িয়েছেন মাইক পেন্স। থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী প্রেয়ুথ চান ওচা এবং অস্ট্রেলিয়ার প্রতিনিধি স্কট মরিসনের মাঝখানে দাঁড়িয়েছিলেন পেন্স। আর এতেই নাকি গুরুত্বের বিষয়টি বোঝা যাচ্ছে বলে দাবি করছে ব্লুমবার্গ। সংবাদমাধ্যমটির দৃষ্টিতে, যুক্তরাষ্ট্রের চেয়ে রাশিয়াকে অনেক বেশি গুরুত্ব দিয়েছে এশিয়ার দেশগুলো। এদিকে বেশ কয়েকজন রাজনৈতিক বিশ্লেষকের বারত দিয়ে সিএনবিসি এক প্রতিবেদনে জানায়, ট্রাম্প আসিয়ানে না আসায় প্রমাণ হয়েছে তিনি এশিয়ার প্রতি খুব একটা মনোযোগী নন। অবশ্য ট্রাম্প এশিয়ার প্রতি মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন কীনা তা নিশ্চিত করতে পারেনি সংবাদমাধ্যমটি। অনেকে বলছেন, ট্রাম্পের কাজ মাইক পেন্স করতে পেরেছেন। কিন্তু এটা মানতে নারাজ অন্য একটি পক্ষ।

বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে ইইউ পার্লামেন্টের গভীর উদ্বেগ

খাসোগি হত্যা: সৌদি পাঁচ কর্মকর্তা মৃত্যুদণ্ডের মুখে, যুবরাজ জড়িত নন!

পার্লামেন্টে এমপিদের হাতাহাতি!(ভিডিও)

কিশোর বক্সারের মৃত্যুতে উত্তাল থাইল্যান্ড

মেলানিয়ার সঙ্গে বিবাদ : পদত্যাগ করলেন ট্রাম্পের উপদেষ্টা

কানাডায় আশ্রয় চাইছে রেকর্ড সংখ্যক মার্কিন নাগরিক!

রোহিঙ্গা ইস্যুতে সু চি’র কঠোর সমালোচনায় মাহাথির

ওয়েস্টবেঙ্গল ‘বাংলা’ হতে পারে না, জানাল ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার