বুধবার, ১২ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং ২৮শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

দিল্লির দূষণে হাঁটা বন্ধ, ক্ষুব্ধ বিচারপতি

news-image

অনলাইন ডেস্ক : বিগত কয়েক বছরে দিল্লিতে দূষণের মাত্রা ক্রমেই বেড়ে চলেছে। কুয়াশা আর ধোঁয়ার মিশ্রণে তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা। ভারতের রাজধানীতে বায়ু দূষণের ফলে বর্তমানে চরম বিপজ্জনক মাত্রায় পৌঁছেছে শহরটি। এখন সারা শহর জুড়ে বাতাসে দেখা যাচ্ছে ধোঁয়াশার আস্তরণ।

দিল্লি ও তার পার্শ্ববর্তী এলাকাতে এই বায়ু দূষণের জেরে সুপ্রিম কোর্টের বিচারক তথা সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা উদ্বেগ প্রকাশ করে জানান, দূষণের ক্রমবর্ধমান মাত্রায় তিনি সকালের দিল্লিতে প্রাতঃভ্রমণে যেতে পারছেন না। শুধু তাই নয়, রাজধানীতে গুরুতর পর্যায়ে বায়ু দূষণের বিষয়ে তার উদ্বেগ ক্রমেই বেড়ে চলেছে বলেও তিনি জানান।

আর এই ঘটনায় সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি অরুণ মিশ্র সলিসিটার জেনারেল তুষার মেহতাকে গোটা বিষয় সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। তুষার মেহতা বলেন, ‘দিল্লি আগে এতটা দূষিত ছিল না। কি এমন হল যার দরুন দূষণের মাত্রা চড়চড় করে এতটা বৃদ্ধি পেল? দিল্লিবাসীরা তাদের বাড়ি থেকে কেউ বেরোতে পারছে না। এমনকি আমি রোজ সকালেই প্রাতঃভ্রমণে যাই। কিন্তু এই দূষণের জন্য এখন সকালে প্রাতঃভ্রমণেও যেতে পারছি না আমি।’

এর আগে সুপ্রিম কোর্টের নিযুক্ত পরিবেশ সুরক্ষা নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ তথা ইপিসিএ সতর্ক করে দিয়েছিল যে, দিল্লির বাতাসের মান যদি ক্রমেই অবনতির পথে এগোয় তাহলে সিএনজি বেসরকারি ও বাণিজ্যিক যানবাহন যাতায়াতের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হবে। বর্তমানে বায়ুর দূষণ পরিমাপক যন্ত্র দিয়ে চলছে দূষণের মাত্রা পরিমাপ করার কাজ।