রবিবার, ১৭ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং ৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

আজ মহান বিজয় দিবস

1_190177ডেস্ক রির্পোট :ত্রিশ লাখ শহীদের আত্মত্যাগের বিনিময়ে অর্জিত বিজয়ের ৪৩ বছর পূর্ণ হল আজ। মুক্তির জয়গানে মুখর কৃতজ্ঞ বাঙালি জাতি শ্রদ্ধাবনত চিত্তে আজ স্মরণ করবে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান সেই অকুতোভয় বীরদের, যাদের আত্মত্যাগের বিনিময়ে অর্জিত হয়েছে এ বিজয়। বিশ্বের মানচিত্রে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে স্বাধীনত সার্বভৌম বাংলাদেশ। সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধসহ সারা দেশে স্মৃতির মিনারগুলো আজ ফুলে ফুলে ছেয়ে যাবে। চিরকৃতজ্ঞ বাঙালি জাতি শ্রদ্ধা আর ভালোবাসা নিয়ে গাইবে মুক্তির জয়গান। বিজয় দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধী দলের নেতা রওশন এরশাদ, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বাণী দিয়েছেন। পৃথক বাণীতে তারা স্বাধীনতা যুদ্ধে সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকারকারী মুক্তিযোদ্ধাদের জাতির সর্বশ্রেষ্ঠ সন্তান বলে আখ্যায়িত করেন।

১৬ ডিসেম্বর প্রথম প্রহর থেকেই জাতীয় স্মৃতিসৌধসহ সারা দেশে শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণে নির্মিত স্মৃতিস্তম্ভগুলোতে রাতের শীত আর কুয়াশাকে তুচ্ছজ্ঞান করে লাখো বাঙালি সুশৃংখলভাবে তাদের প্রাণের অর্ঘ্য নিবেদন করে দেশের জন্য প্রাণ বিসর্জনকারী মুক্তিযোদ্ধা আর সব শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।বিজয়ের ৪৩তম বার্ষিকীতে বিজয় দিবস ভিন্ন মাত্রাই উদ্যাপিত হচ্ছে। নানা ষড়যন্ত্র মোকাবিলা ও চড়াই-উৎরাই পেরিয়ে দুর্ধর্ষ ঘাতক, মিরপুরের কসাই নামে পরিচিত জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আবদুল কাদের মোল্লার ফাঁসি কার্যকর হয়েছে। আরেক ঘাতক কামারুজ্জামানের ফাঁসি কার্যকরের অপেক্ষায় রয়েছে।শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য মিছিলের স্রোত আজ এগিয়ে চলেছে সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধের দিকে। জাতি আজ শ্রদ্ধাবনত হৃদয়ে স্মরণ করছে স্বাধীনতা সংগ্রামের মহান নায়ক বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। ধানমণ্ডির ঐতিহাসিক ৩২ নম্বরে তার প্রতিকৃতির সামনে দাঁড়িয়ে নতুন করে শপথ নেবেন নতুন প্রজন্মের মানুষ।গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় তার মাজারেও শ্রদ্ধা জানাবে লাখো মানুষ। কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করা হবে আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধে সহায়তাকারী বন্ধুরাষ্ট্র ভারতকে, যারা সে সময় এক কোটি মানুষকে আশ্রয়, মুক্তিযোদ্ধাদের ট্রেনিং আর সাহস যুগিয়েছিল। স্মরণ করা হবে সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নসহ (রাশিয়া) অন্য বন্ধুরাষ্ট্র ও ব্যক্তির অবদানের কথা।বিজয় দিবস উপলক্ষে আজ সাধারণ ছুটির দিন। ভোরে ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে বিজয় দিবসের কর্মসূচি শুরু হয়েছে। সারা দেশে সরকারি-বেসরকারি ভবনে জাতীয় পতাকা উড়ছে। ঘরে ঘরে উড়ছে লাল-সবুজ পতাকা। সূর্যোদয়ের সময় সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে স্বাধীনতার শহীদদের অমর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করবেন রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও জাতীয় নেতারা। স্মৃতিসৌধে নামবে স্বাধীনতা প্রিয় জনতার ঢল। বিজয় দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে যুগান্তরসহ জাতীয় সংবাদপত্রগুলো প্রকাশ করেছে বিশেষ ক্রোড়পত্র। বাংলাদেশ বেতার, বিটিভি, বেসরকারি রেডিও এবং টেলিভিশনে সম্প্রচার করা হচ্ছে বিশেষ অনুষ্ঠানমালা। সব কিছুর মধ্য দিয়ে জাতি আজ আবারও শপথ নেবে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের রায় কার্যকরের জন্য।বিভিন্ন সংগঠনের কর্মসূচি : যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস উদ্যাপনের জন্য দেশের প্রধান প্রধান রাজনৈতিক দলসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন নানা কর্মসূচি ঘোষণা করেছে। এসব কর্মসূচির মধ্যে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ, বিজয় শোভাযাত্রা, আলোচনা সভা, বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা, স্বাধীন বাংলা বেতারের ও দেশ বরেণ্য শিল্পীদের নিয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং শিশুদের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতাসহ নানা আয়োজন করা হয়েছে।আওয়ামী লীগের কর্মসূচি : মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে আওয়ামী লীগ দু’দিনের কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। এসব কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে সূর্যোদয় ক্ষণে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়, বঙ্গবন্ধু ভবন ও দেশব্যাপী সংগঠনের কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলন। সকাল ৬টা ৩৪ মিনিটে সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে পুষ্পার্ঘ্য নিবেদন। সকাল ৮টায় বঙ্গবন্ধু ভবনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন। সকাল ১০টায় টুঙ্গিপাড়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে পুষ্পার্ঘ্য নিবেদন, জিয়ারত, দোয়া ও মিলাদ মাহফিল। বিকাল ৪টা ২০ মিনিটে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের শিখা চিরন্তন থেকে শুরু হবে বিজয় শোভাযাত্রা। বুধবার বিকাল ৩টায় রয়েছে আলোচনা সভা। ফার্মগেট খামারবাড়ি কৃষিবিদ ইন্সটিটিউশন মিলনায়তনে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। এতে প্রধান অতিথি থাকবেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা।বিভিন্ন সংগঠনের কর্মসূচি : মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে জাতীয় পার্টি, ওয়ার্কার্স পার্টি, গণফোরাম, ন্যাপ, জাকের পার্টি, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি, কেন্দ্রীয় কচি-কাঁচার মেলা, মুক্তিযোদ্ধা ঐক্য পরিষদ, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশন, কৃষক লীগ, জাতীয় গণতান্ত্রিক লীগ, আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরাম, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, অগ্রণী ব্যাংক অ্যামপ্লয়িজ ইউনিয়ন, বিজয় ’৭১ প্রভৃতি সংগঠন বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।

এ জাতীয় আরও খবর

চলছে প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা

বাংলা ট্রিবিউনের সাংবাদিকের মরদেহ উদ্ধার

সরাইলে প্রথম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা, শিক্ষিকার স্বামী গ্রেফতার

চট্টগ্রামে গ্যাস লাইন বিস্ফোরণে ভবনের দেয়াল ধস, ৭ জনের মৃত্যু

আশুগঞ্জে নিরবিচ্ছিন্ন পানি প্রবাহ পেতে কৃষকদের মানব বন্ধন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বাংলাদেশ জাসদের শোকসভা

মওলানা ভাসানীর ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

নকল সহায়তা প্রদানের অভিযোগে ৭ শিক্ষক ও ২ শিক্ষার্থী বহিষ্কার

রংপুর লাকী হসপিটালে চিকিৎসকের অবহেলায় প্রসূতির মৃত্যু

বিপিএলের লোগো উন্মোচিত

পার্থক্য গড়ে দিয়েছে কম টেস্ট খেলা : মুমিনুল

সবসময়ই আনন্দের ব্রাজিলকে হারানো : মেসি