বুধবার, ২৩শে জানুয়ারি, ২০১৯ ইং ১০ই মাঘ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট প্রার্থীদের কুরআন পাঠের পরীক্ষা দিতে হবে

news-image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ইন্দোনেশিয়ার আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থীদেরকে কুরআন পাঠের পরীক্ষায় অংশগ্রহণের আহ্বান জানিয়েছে দেশটির আচেহ প্রদেশের মুসলিম আলেমদের সংগঠন আচেহ ক্লারিকস কাউন্সিল।

পৃথিবীর বৃহত্তম মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ জনগোষ্ঠীকে নেত্বত্বদানকারী সবচেয়ে যোগ্য ব্যক্তি বাছাইয়ের একটি উপায় হিসেবে তারা এই আহ্বান জানিয়েছে। দেশটির গণমাধ্যম দ্য জাকার্তা পোস্টে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে এই রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়।

আগামী ১৫ জানুয়ারি বান্দা আচেহ’র বাইতুররাহমান গ্র্যান্ড মসজিদে এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। কাউন্সিলের পক্ষ থেকে ইতোমধ্যে দেশটির রাষ্ট্রপতি জোকো উইদোদো এবং তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রাবোও সুবিয়ান্তোর প্রচারণা দলের কাছে অনুষ্ঠানের আমন্ত্রণ পাঠানো হয়েছে।

তবে দেশটির ইসলামি শরিয়াহ আইন শাসিত রক্ষণশীল প্রদেশটির আলেমদের এই আহ্বানে আলাদা আলাদা প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে উইদোদোর ইন্দোনেশিয়ান ডেমোক্র্যাটিক পার্টি অব স্ট্রাগল এবং সুবিয়ান্তোর গ্রেট ইন্দোনেশিয়া মুভমেন্ট পার্টি।

ইন্দোনেশিয়ান ডেমোক্র্যাটিক পার্টি অব স্ট্রাগল জানিয়েছে, এই পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে প্রস্তুত তারা। দলটির আচেহ প্রদেশের প্রচারণাকর্মী আলি রাবান বলেন, রাষ্ট্রপতি এই পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে প্রদেশটিতে যাওয়ার কথা জানিয়েছেন।

আলির বরাত বরাত দিয়ে দেশটির জাতীয় সংবাদপত্র কম্পাস জানিয়েছে, দলের কেন্দ্র থেকে তাকে জানানো হয়েছে যে উইদোদো এবং তার রানিং মেট মা’রুফ আমিন এই পরীক্ষার অনুষ্ঠানে গ্রহণ করবেন।

বৃহস্পতিবার দলটির উপ-চেয়ারম্যান আবদুল কাদির কার্দিং বলেছেন, কুরআন পাঠের পরীক্ষায় অংশগ্রহণের মধ্যে নেতিবাচক কিছু দেখছেন না উইদোদো। কারণ এই ধারণা এসেছে জনগণের মধ্য থেকেই।

অন্যদিকে দুটি ইসলামি দল সমর্থিত প্রাবোও’র প্রচারণা দলটি বলছে, এই ধরনের পরীক্ষার প্রয়োজন নেই। আর যদি এমন কিছু ঘটে, তবে আয়োজকরা যে কুরআন পাঠে বিশেষজ্ঞ, সেটার প্রমাণ দিতে হবে তাদেরকে।
দলটির কর্মী হিদায়াত নুর ওয়াহিদ বলেন, আয়োজকদের প্রমাণ করা উচিত যে তারা প্রকৃতপক্ষে যোগ্যতাসম্পন্ন। তারা কুরআন পাঠে সক্ষম- এমন সার্টিফিকেট অবশ্যই তাদেরকে দেখাতে হবে।

গ্রেট ইন্দোনেশিয়া মুভমেন্ট পার্টির নির্বাহী আন্দ্রে রোসিয়াদে দাবি করেন, প্রাবোও এই পরীক্ষায় অংশগ্রহণে অস্বীকৃতি জানাননি। কিন্তু যারা নিজেদের ধর্মীয় জীবন মানুষকে দেখিয়ে বেড়ায়, তিনি তাদের মতো নন।