শুক্রবার, ২৬শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং ১৩ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

প্রথম প্রেমের প্রস্তাব পেয়ে ভয়ে মাকে বলে দিয়েছিলাম : বিপাশা করবিরে

news-image

বিনোদন ডেস্ক : সময়ের ঘূর্ণিপাকে আজ ঋতুরাজ বসন্তের দ্বিতীয় দিন। মানে আজ বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। ভালোবাসার আবহে মেতে রয়েছে চারদিক। প্রিয় জনকে ফুল কিংবা নানা উপহার দিয়ে যে যার মত করে দিনটি পালন করছে। শোবিজ তারকাদের নিয়ে ভক্তদের কৌতূলের শেষ নেই। আর যদি সেটা হয় তাদের ভালোবাসার নিয়ে তাহলে কথাই নেই।

বিশ্ব ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ জার্নালের সাথে কথা হলো বর্তমান সময়ে ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় মুখ লাক্স তারকা বিপাশা করবিরের সাথে। জানালেন তার ভালোবাসার অজানা কথা।

প্রশ্ন : আপনার কাছে ভালোবাসার মানে কী?

বিপাশাঃ আমার কাছে ভালোবাসার মানে বিশ্বাস। একে অন্যকে বোঝা। যেখানে ভালোবাসা আছে সেখানে বিশ্বাস থাকাটা অনেক জরুরী।

প্রশ্ন : প্রথম কবে প্রেমের প্রস্তাব পেয়েছিলেন?

বিপাশাঃ আমি যখম পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ি তখন এলাকার একজন আমাকে প্রেমের প্রস্তাব দেয়। আমি তখন কিছুই বুঝতাম না অনেকটা ভয় পেয়েছিলাম। আর তাই ভয়ে আম্মুকে বলেছিলাম প্রেমের প্রস্তাব পাওয়ার কথা।

প্রশ্ন : এখন পর্যন্ত কত গুলো প্রস্তাব পেয়েছেন?

বিপশাঃ হা হা হা তা তো আর গুনে রাখিনি। তবে সেঞ্চুরি হবে সিওর।

প্রশ্ন : এখন পর্যন্ত অনেক গিফট পেয়েছেন ভালোবাসা দিবসে। এর মাঝে আপনার কাছে সবচেয়ে পছন্দের উপহার কোনটি?

বিপাশাঃ হুম উপহার অনেক পেয়েছি তবে ওগুলোর মাঝে সবচেয়ে ভালো লাগার উপহার হলো একটি টেডি বিয়ার। গতবছর আমাকে আমার একজন ভালোবাসার মানুষ দিয়েছিলো এটি। টোটাল বিষয়টাতে একটা রোমান্টিকতা ছিলো।

প্রশ্ন : আপানার দৃষ্টিতে প্রেম ও ভালোবাসার মাঝে পার্থক্য কী?

বিপাশাঃ ভালো লাগা বা ভালোবাসা একজনের জন্যেই আসে ও একবারই আসে। কিন্তু প্রেম যেকোন সময় আসতে পারে একাধিকবার।

প্রশ্ন : একজন প্রেমিক বা প্রেমিকার কেমন হওয়া উচিত বলে আপনি মনে করেন?

বিপাশাঃ আমি আগেই বলেছি ভালোবাসা বা প্রেম যাই বলিনা কেনো সেখানে বিশ্বাস থাকতে হবে। আর দু’জনেরই পারস্পরিক সম্মানবোধ থাকতে হবে। অনেক সময় দেখা যায় কেউ কাউকে সম্মান করে না, কারও প্রতি বিশ্বাস নেই কিন্তু শুধু মায়ার কারণে বছরের পর বছর সামনে নিয়ে যেতে থাকে। আমার কাছে মনে হয় এই সম্পর্কের কোন দাম নেই। পারস্পরিক শ্রদ্ধা থাকাটা খুব জরুরি। বাংলাদেশ জার্নাল