সোমবার, ২৭শে মে, ২০১৯ ইং ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

এখনো অনশনে ঢাবির ছয় শিক্ষার্থী

news-image

নিজস্ব প্রতিবেদক : অনিয়মের অভিযোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদের সদ্য সমাপ্ত নির্বাচন বাতিল করে পুনর্নির্বাচনের জন্য পুনঃ তফসিলের দাবিতে ছয় শিক্ষার্থীর অনশন আজও চলছে। আজ বুধবার শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এখনো তাঁরা অনশনে আছেন। তাঁদের দাবি যতক্ষণ না পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বা দায়িত্বপ্রাপ্ত কেউ এসে তাঁদের আশ্বস্ত করছেন ততক্ষণ পর্যন্ত তাঁরা অনশন চালিয়ে যাবেন।

অনশনে বসা ছয় শিক্ষার্থী হলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী তাওহীদ তানজিম, দর্শন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী অনিন্দ্য মণ্ডল, পপুলেশন সায়েন্সেস বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মাঈন উদ্দিন, পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী শোয়েব মাহমুদ, ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী রনি হোসেন এবং গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী রাফিয়া তামান্না।

গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে এই শিক্ষার্থীরা অনশন শুরু করেন। ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচনের পুনঃ তফসিল ঘোষণার আগে ১১ মার্চের নির্বাচনের সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের (উপাচার্য ও প্রধান রিটার্নিং কর্মকর্তা ও অন্য পাঁচ রিটার্নিং কর্মকর্তা) পদত্যাগের দাবিও জানাচ্ছেন তাঁরা৷ তাঁদের পাশে রাখা তিনটি প্ল্যাকার্ডে লেখা রয়েছে, ‘একটা ফেয়ার ইলেকশনের জন্য…’ ‘আমরণ অনশন…’ ও ‘শিক্ষকদের ভোট ডাকাতি এই লজ্জা কোথায় রাখি?’

এদের মধ্যে তাওহীদ তানজিম ডাকসুর কেন্দ্রীয় সংসদে ছাত্র পরিবহন সম্পাদক পদে স্বতন্ত্র জোটের প্রার্থী ছিলেন, অনিন্দ্য মণ্ডল জগন্নাথ হল সংসদে সদস্য পদে প্রগতিশীল ছাত্রঐক্যের প্রার্থী ছিলেন, মাঈন উদ্দিন ছিলেন হাজী মুহম্মদ মুহসীন হল সংসদের প্রগতিশীল ছাত্রঐক্যের সংস্কৃতি সম্পাদক পদের প্রার্থী, পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী শোয়েব মাহমুদ ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ্‌ হল সংসদে সাহিত্য সম্পাদক পদে প্রগতিশীল ছাত্রঐক্যের প্রার্থী ছিলেন।

অনশনে বসা শিক্ষার্থী মাঈন উদ্দিন আজ প্রথম আলোকে বলেন, ‘নতুন তফসিল ঘোষণা করার আগেই এবারের ভোট কারচুপিতে যারা জড়িত তাঁদের পদত্যাগ করতে হবে। যতক্ষণ না পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বা দায়িত্বপ্রাপ্ত কেউ এসে আমাদের আশ্বস্ত করছেন ততক্ষণ পর্যন্ত আমরা অনশন চালিয়ে যাব।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সহসভাপতি (ভিপি) পদে নুরুল হক ও সাধারণ সম্পাদক (জিএস) পদে গোলাম রাব্বানী নির্বাচিত হয়েছেন। সোমবার দিবাগত রাত সাড়ে তিনটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও ডাকসুর সভাপতি মো. আখতারুজ্জামান এ ফল ঘোষণা করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে এ ফল ঘোষণা করা হয়। ঘোষিত ফল অনুসারে সহসাধারণ সম্পাদক (এজিএস) পদে জয়ী হয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন। ডাকসুর ২৫ পদের মধ্যে ২৩টিতেই ছাত্রলীগের প্রার্থীরা নির্বাচিত হন। সমাজসেবা সম্পাদক পদে নির্বাচিত হন সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের প্রার্থী আখতার হোসেন।

ভিপি পদে বিজয়ী নুরুল হক কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের নেতা হিসেবে পরিচিত। তিনি সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ থেকে নির্বাচন করেন। অন্যদিকে জিএস পদে নির্বাচিত গোলাম রাব্বানী বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক। প্রথম আলো