শুক্রবার, ২২শে মার্চ, ২০১৯ ইং ৮ই চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ফল খাবেন খালি পেটে

news-image

আজকের দিনে আমাদের চারপাশ জুড়ে কত রকম খাবারের সমারোহ! আর বছর জুড়ে প্রকৃতি থেকে আমরা পাই বিভিন্ন ধরনের ফল। আমাদের খাদ্য তালিকায় ফল একটা গুরুত্বপূর্ণ জায়গা দখল করে আছে।তবে অনেকে মনে করেন, ফল খাওয়া মানে দোকানে গিয়ে ফল কেনা, বাড়িতে ফিরে তা কেটে পেটে চালান করে দেয়া। কিন্তু বাস্তবে এটাকে যত সহজ ভাবা হচ্ছে, তা নয়। ফল কখন খাবেন এবং কীভাবে খাবেন তা জানা গুরুত্বপূর্ণ। লক্ষ্য করলে দেখবেন বাসা বাড়িতে বা  কোনো পার্টিতে মুল খাবারের পর ফল খেতে দেয়া হয়।

অধিকাংশ ক্ষেত্রে মানুষ মূল খাবারের পর ফল খেতে অভ্যস্ত। কিন্তু এটা একটা ভুল পদ্ধতি। ফল খেতে হবে খালি পেটে। খালি পেটে ফল খেলে তা আপনার দেহের আন্ত্রিক পদ্ধতি বিষমুক্ত করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এটা আপনাকে যেমন শক্তি যোগাবে তেমনি ওজন হ্রাস ও অন্যান্য দৈহিক তত্পরতায়  যথেষ্ট সহায়তা করবে। মনে করুন আপনি প্রথমে দুই টুকরো রুটি খেলেন এবং তারপর এক টুকরো ফল খেলেন। ফলের টুকরো পাকস্থলি হয়ে সরাসরি অন্ত্রে নেমে যেতে প্রস্তুত, কিন্তু তা হয় না। আসলে তেমনটি হতে দেয়া হয় না। ইতিমধ্যে আপনার গৃহীত খাবার পাকস্থলিতে পচন ধরে এবং গাজিয়ে এসিডে পরিণত হয়। যে মুহুর্তে আপনার খাওয়া ফল পাকস্থলিতে এই এসিড এবং পাচক রসের সংস্পর্শে আসে, আপনার খাওয়া পুরো খাদ্য নষ্ট হতে শুরু করে। সুতরাং এ  থেকে পরিত্রাণ পেতে হলে খালি পেটে ফল খান অথবা মূল খাবারের আগেও খেতে পারেন।

আপনার অভিজ্ঞতা থেকে হয়ত দেখেছেন বা শুনে থাকবেন যে, যখনই মূল খাবারের পর কেউ তরমুজ খান, তখন পেট স্ফীত হয়। তেমনি খাবারের পর কলা খেলে মনে হয় পায়খানার খুবই বেগ পেয়েছে। প্রকৃত পক্ষে এ সমস্যার কোনোটিরই মুখোমুখিই হবেন  না যদি আপনি খালি পেটে ফল খান। আর খাবার পর ফল খেলে সেগুলি খাদ্যের পচন ক্রিয়ায় যুক্ত হয়ে গ্যাস তৈরি করে, যার ফলে আপনার পেট স্ফীত হয়ে উঠতে পারে।