রবিবার, ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং ৭ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

আখাউড়ায় ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা

news-image
ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়া আখাউড়ায় মাহমুদা আক্তার (৩০) নামে এক গৃহবধূ ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।রোববার ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে আখাউড়া রেলওয়ে থানা পুলিশ। সে কসবা উপজেলার বিশারাপাড়ার সৌদি আরব প্রবাস ফেরৎ জসিম উদ্দিনের স্ত্রী।

আখাউড়া রেলওয়ে পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, সৌদি আরব প্রবাসী স্বামী জসিম উদ্দির প্যারালাইসিস অসুস্থতার কারণে কোম্পানি তাকে সম্প্রতি দেশে পাঠিয়ে দেয়। দেশে আসার পর অসুস্থতা বেড়ে গেলে জসিম হাঁটাচলা বন্ধ হয়ে বিছানায় পড়ে যায়। এতে স্বামীর প্রতি মাহমুদার অনীহাভাব চলে আসে।

নিহতের পরিবারের বরাত দিয়ে আখাউড়া থানার ওসি শ্যামল কান্তি দাস বলেন, স্বামী প্যারালাইসিস অসুস্থতার জন্য বিছানায় পড়ে আছে। এতে স্বামী সংসারের প্রতি মাহমুদার অনীহা ও উদাসিনতা চলে আসে। অভিমান করে বাবার বাড়ি চলে যায়। পরিবারের লোকজন তাকে বুঝিয়ে ফের স্বামীর বাড়িতে পাঠায়। এতে মনের দুঃখে অভিমানে সে ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলপথের কসবা রেলওয়ে ষ্টেশনের গঙ্গানগর এলাকায় শনিবার ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা চট্টগ্রামগামী আন্তঃনগর মহানগর এক্সপ্রেস ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করে।

খবর পেয়ে বিকাল সাড়ে ৫ টায় আখাউড়া জিআরপি থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মাথাবিহীন লাশ উদ্ধার করে। রোববার ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে আখাউড়া রেলওয়ে থানা পুলিশ। এ ঘটনায় আখাউড়া রেলওয়ে থানায় অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে ওসি জানিয়েছেন।

এ জাতীয় আরও খবর

১০০ বছর পরে যে ফুল ফোটে

বিয়েতে রানী ভবানীর ছিল তিন শর্ত

৫০ টাকার লোভ দেখিয়ে ভাতিজিকে ধ’র্ষণ

একাধিক প্রেমিক ছিলো রানুর জীবনে, ফাঁস করলেন পরিচালক

সাবেক মন্ত্রীকে নিয়ে হোটেলে ছিলেন, স্বীকার করলেন সানাই

প্রধানমন্ত্রীর হুঁশিয়ারির পরেও স্বাস্থ্য কেন্দ্রে যোগদান করেনি ৬ ডাক্তার!

‘ইরানের বিরুদ্ধে যুদ্ধে জড়ালে সৌদি আরব ও আমিরাত ধ্বংস হয়ে যাবে’

যুদ্ধের শঙ্কার মধ্যেই ইরান-রাশিয়া-চীনের যৌথ নৌমহড়া

যে কারণে ২০ গানম্যান নিয়ে রাজকীয় ভঙ্গিতে চলতেন জিকে শামীম

বিসিএস উত্তীর্ণের দিন এলো ক্যান্সারের খবর!

বাসা ছেড়ে দেয়ায় স্বামীকে পি’টিয়ে স্ত্রীকে ধ’র্ষণ

জব্দ করা কোটি কোটি টাকা বেকারদের কর্মসংস্থানে ব্যয় করার প্রস্তাব রাশেদা রওনকের