বৃহস্পতিবার, ১৮ই জুলাই, ২০১৯ ইং ৩রা শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

চিকিৎসা নিতে আসা গৃহবধূ ধর্ষিত

news-image

ডেস্ক রিপোর্ট।। বরিশালে চিকিৎসা নিতে এসে অচেতন করে ধর্ষণের শিকার হয়েছে এ গৃহবধূ। একইসাথে ভিডিও ধারণ করে ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে আরো একাধিকবার ধর্ষণ করে ঐ লম্পট চিকিৎসক। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিয়ের প্রলোভনে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে বিদ্যালয়ের শিক্ষকের বিরুদ্ধে। ধামরাইয়ে ছাত্রীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে অপহরণের পর ধর্ষণ করেছে এক বখাটে। ৫ দিন পর ধর্ষকসহ ঐ ছাত্রীকে আটক করেছে পুলিশ। পিরোজপুরে ৮ম শ্রেণি ছাত্রের হাতে ধর্ষণের শিকার হয়ে চারমাসের অন্তঃসত্ত্বা ৫ম শ্রেণির ছাত্রী। এ ঘটনা প্রকাশ হলে হত্যা ও লাশ গুম করার হুমকি দেয় ধর্ষক। অন্যদিকে জামালপুরে বোনের বাড়িতে যাওয়ার পথে ইজিবাইক চালকের হাতে ধর্ষণের শিকার হয়েছে এক ছাত্রী। সংবাদদাতাদের তথ্যের ভিত্তিতে এ প্রতিবেদন:

বরিশাল : বরিশালের উজিরপুরে চিকিৎসার নামে অচেতন করে প্রবাসীর স্ত্রীকে (৩২) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে এক পল্লী চিকিৎসকের বিরুদ্ধে। ধর্ষণের ফলে ওই নারী বর্তমানে চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা বলে দাবি করেছেন তার স্বজনরা।

অভিযুক্ত পল্লী চিকিৎসক মিজানুর রহমান উপজেলার দক্ষিণ সাতলা গ্রামের আমজেদ মিঞার ছেলে। স্থানীয় নয়াকান্দি বাজারে জান্নাত মেডিকেল হল নামে তার একটি ফার্মেসি রয়েছে। সেখানে দীর্ঘদিন থেকে রোগীদের চিকিৎসাসেবা দিয়ে আসছিলেন তিনি। গৃহবধূর শাশুড়ি ও দেবর অভিযোগ করে বলেন, পল্লী চিকিৎসক মিজানুর রহমানের জান্নাত মেডিকেল হলে প্রায় ছয় মাস আগে চিকিৎসা নিতে যান ওই গৃহবধূ ওই সময় ঘুমের ইনজেকশন দিয়ে অচেতন করে গৃহবধূকে ধর্ষণ করে চার সন্তানের জনক লম্পট মিজানুর রহমান এবং মোবাইলে তার নগ্ন ভিডিও ধারণ করেন। এরপর ভিডিও ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে ছয় মাস ধরে বিভিন্ন স্থানে নিয়ে তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করে।

ধর্ষণের ফলে সৌদি প্রবাসীর স্ত্রী গৃহবধূ চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন। বিষয়টি গৃহবধ‚ লম্পট মিজানকে জানালে বেশ কয়েকবার গর্ভপাত ঘটানোর চেষ্টা করেন। অবশেষে গত ২৯ জুন গৃহবধূকে নিয়ে পার্শ্ববর্তী গৈলা হাসপাতালে গর্ভপাত ঘটানোর জন্য ভর্তি করেন মিজান। কিন্তু ওই হাসপাতালে চিকিৎসক গর্ভপাত ঘটাতে অস্বীকৃতি জানালে সেখান থেকে দুজনই পালিয়ে যান। বর্তমানে গৃহবধূকে নিয়ে আত্মগোপনে মিজানুর রহমান। গৃহবধূর শাশুড়ি ও দেবর বলেন, প্রথমে মিজানের ভয়ে ও লোকলজ্জায় মুখ খুলতে সাহস পাইনি। কিন্তু বিষয়টি এখন অনেক দূর গড়িয়েছে। এলাকায় দুর্নাম ছড়িয়েছে। প্রয়োজনে থানায় মামলা করব। আমরা লম্পট মিজানের বিচার চাই। উজিরপুর মডেল থানা পুলিশের ওসি শিশির কুমার পাল জানান, এ বিষয়ে কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নবীনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) : কনিকাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ইংরেজী শিক্ষক কাজী মুরাদ বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে নবম শ্রেনির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় থানা পুলিশ গতকাল মঙ্গলবার ওই শিক্ষককে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণ করেছে।

নবীনগর থানা ও এলাকাবাসীর সূত্রে জানা যায়, কনিকাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনির (ধর্র্ষিত) ছাত্রী গত ২ মাস যাবৎ ঐ শিক্ষকের কাছে প্রাইভেট পড়ে আসছিল। গত সোমবার সন্ধায় এই শিক্ষক ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে নবীনগর কলেজপাড়ায় তার বাসায় ডেকে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে ঐ লম্পট শিক্ষক। পরে ছাত্রীকে সন্ধায় নবীনগর সমবায় মার্কেটের সামনে ছেড়ে দিয়ে চলে যাওয়ার সময় বিষয়টি প্রকাশ পায়। রাতে বিষয়টি নিয়ে স্কুল কর্তৃপক্ষ ও মেয়ের পরিবার মিমাংসা করার চেষ্টা করে ব্যর্থ হলে শিক্ষকে থানায় সোপর্দ করা হলে থানা কর্তৃপক্ষ তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করেন। অভিযুক্ত শিক্ষক মুরাদের বাড়ি নবীনগর উপজেলার রতনপুর গ্রামে। স্কুলের প্রধান শিক্ষককে মোবাইল ফোনে পাওয়া যায়নি। নবীনগর থানার ওসি বলেন ঘটনাটি দুঃখজনক। নবীনগর উপজেলায় এ ধরনের ঘটনা আরো ঘটায় অভিভাবকদের মাঝে হতাশা দেখা দিয়েছে।

পিরোজপুর : নাজিরপুরে ৮ম শ্রেণির ছাত্রের ধর্ষণের শিকার হয়ে চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা ৫ম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী (১২)। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার শ্রীরামকাঠি ইউনিয়নের দরিয়াবাদ এলাকায়। এ ঘটনায় রোববার রাতে ওই শিক্ষার্থীর মামা বাদী হয়ে একই এলাকার শুধাংশু হালদারের ছেলে সুদেব হালদারের বিরুদ্ধে নাজিরপুর থানায় একটি মামলা করেন। অভিযুক্ত সুদেব হালদার উপজেলার খেজুরতলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্র।

পুলিশ ও পারিবারিক স‚ত্রে জানা যায়, ধর্ষণের শিকার ওই মেয়েটির বাড়ি উপজেলার মালিখালী ইউনিয়নের সাচিয়া গ্রামে। ছোট বোনকে নিয়ে মা-বাবা ভারতে বসবাস করায় মেয়েটি উপজেলার দরিয়াবাদ এলাকায় মামার বাড়ি বসবাস করে স্থানীয় একটি স্কুলে ৫ম শ্রেণিতে লেখাপড়া করে। একই গ্রামের শুধাংশু হালদারের ছেলে সুদেব হালদার সাত মাস ধরে তাকে ফুসলিয়ে ধর্ষণ করে। এতে মেয়েটি চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। এ ঘটনা প্রকাশ করলে মেয়েটিকে হত্যা ও লাশ গুম করার হুমকি দেয় ধর্ষক সুদেব হালদার।

নাজিরপুর থানার ওসি মো. মুনিরুল ইসলাম মুনির জানান, ৫ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। শারীরিক পরীক্ষার জন্য তাকে পিরোজপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

জামালপুর : গত রোববার দুপুরে শেরপুর সদরের বলাইয়ের চরে তার বোনের শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে যাচ্ছিল ওই স্কুলছাত্রী। জামালপুর-শেরপুর ব্রহ্মপুত্র সেতুতে তার বোনের শ্বশুরবাড়ি এলাকার হাবিবুর রহমানের ছেলে জিহাদ (২২) তাকে পৌঁছে দেয়ার কথা বলে ইজিবাইকে করে জামালপুর সদরের লক্ষীরচর ইউনিয়নের চরযথার্থপুর গ্রামে নিয়ে যায়।

পরে সেখানে একটি নির্জন যায়গায় রাস্তার পাশের এক লেবু বাগানে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রীর ভগ্নিপতি গত সোমবার সন্ধ্যায় জিহাদকে আসামি করে সদর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। জামালপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সালেমুজ্জামান জানান, স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ধামরাই (ঢাকা) : ধামরাইয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেণীর এক মাদরাসা ছাত্রীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে অপহরণের পর ধর্ষণ করেছে শাহাবুদ্দিন (২২) নামের এক বখাটে। ৫ দিন পর গত সোমবার রাতে ছাত্রী উদ্ধারসহ ধর্ষককে আটক করেছে থানা পুলিশ। এই ঘটনায় মেয়ের মা জরিনা বেগম বাদী হয়ে ধামরাই থানায় একটি মামলার দায়ের করেছে। পুলিশ ৫দিনের রিমান্ড চেয়ে গতকাল মঙ্গলবার আসামী শাহাবুদ্দিনকে আদালতে প্রেরণ করেছেন। গ্রেফতারকৃত শাহাবুদ্দিন ফরিদপুর জেলার বোয়ালমারী থানা এলাকার আতিয়ার মোল্লার ছেলে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ২৬ জুন ধামরাই এলাকা থেকে প্রেমের প্রলোভন দেখিয়ে শাহাবুদ্দিন নামের এক বখাটে মেয়েটিকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরে মেয়ের মা-বাবা অনেক খোঁজাখুজি করে না পেয়ে ধামরাই থানায় একটি জিডি করেন। পরে পুলিশ শাহাবুদ্দিনের মোবাইল ফোন ট্র্যাকিং করে বুঝতে পারে মেয়েটিকে নিয়ে মিরপুর ২ নম্বরের আছে। কিন্তু পুলিশের টের পেয়ে তারা সেখান থেকে সরে গিয়ে ফরিদপুর জেলার বোয়ালমারী নিজ এলাকায় অবস্থান করে শাহাবুদ্দিন। পরে পুলিশ বোয়ালমারী এলাকা থেকে মেয়েটিকে উদ্ধার করে এবং শাহাবুদ্দিনকে আটক করে ধামরাই থানায় নিয়ে আসে। গতকাল সকালে মেয়ের মা বাদী হয়ে একটি অপহরণ মামলা দেেয়র করে। মেয়ের মা জরিনা বেগম ধামরাই পৌর-সভার পাঠানটোলা মহল্লার উজ্জলের বাড়ীর ভাড়াটিয়া।

থানার এসআই আব্দুল লতিফ বলেন, মেয়ের মা বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। পরে ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে শাহাবুদ্দিনকে আদারতে প্রেরণ করা হয়েছে। উৎস: ইনকিলাব।

এ জাতীয় আরও খবর

সৌদি আরব থেকে কিশোরীর ধর্ষককে ধরে আনলেন এই নারী পুলিশ

ফের শাহবাগ অবরোধ করেছে ঢাবি শিক্ষার্থীরা, গাড়ি চলাচল বন্ধ

তসলিমা চাইল ৫ বছর, ভারত দিল তিন মাস

রিফাত হ*ত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন মিন্নি

অসুস্থ শিশু নিয়ে ভিক্ষাবৃত্তি, কথিত বাবাকে পুলিশে দিয়ে হাসপাতালে এএসপি

আমের ‘জুসে’ আম কই?

অল্পের জন্য বেঁচে গেলো ১৫৩ বিমান যাত্রী

বাবা-মায়ের ঝগড়া, রাষ্ট্রপতির কাছে স্বেচ্ছামৃত্যুর আবেদন ছেলের

হরিপুরে সাপের কামড়ে ছাত্রের মৃত্যু

রিফাত হত্যা : রিশান ফরাজীও গ্রেফতার

ওআইসিতে ইসরাইলের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের নিন্দা

ডিসিদের জন্য বিশেষ ফোর্সের দরকার নেই, বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী