শুক্রবার, ১৮ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং ৩রা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

তবুও প্রধান সড়কে রিকশা-ভ্যান

news-image

নিউজ ডেস্ক : রাজধানীর প্রধান সড়কে তবুও থেমে নেই তিন চাকার বাহন রিকশা ও ভ্যান চলাচল। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করেই মানবচালিত এ বাহন নির্বিঘ্নে চলাচল করছে কুড়িল-রামপুরা-সায়েদাবাদ সড়কে। পুলিশ বলছে এটা দেখভালের দায়িত্ব তাদের একার না, সিটি করপোরেশনেরও।

বুধবার (১০ জুলাই) সকাল সাড়ে ৯টায় সরেজমিনে সড়কে এ চিত্র দেখা যায়।

নিষেধাজ্ঞা বাস্তবায়নে ডিএমপির ট্রাফিক বিভাগের কোনো তৎপরতা না থাকাকেই দায়ী করেছেন সাধারণ মানুষ।

সম্প্রতি রাজধানীর প্রধান তিন সড়কে রিকশা চলাচলে নিষেধাজ্ঞা দেয় ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষ। কিন্তু এ নিষেধাজ্ঞাকে সাধারণ মানুষ স্বাগত জানালেও রিকশা মালিক ও চালকরা তোয়াক্কা না করেই প্রধান সড়কে চালাচ্ছেন রিকশা ও ভ্যান।

বুধবার সকালে রাজধানীর কুড়িল বিশ্বরোড-নতুনবাজার-বাড্ডা-রামপুরা সড়কের শাহজাদপুর বাড্ডা এলাকায় অনেকগুলো রিকশা ও ভ্যান চলাচল করতে দেখা যায়। যদিও আগের চেয়ে সংখ্যায় কম, কিন্তু একটু পরপরই প্রধান সড়কে উঠছে রিকশা ও ভ্যান। এতে যান চলাচল আগের মতোই বিঘ্ন ঘটাচ্ছে।

সাধারণ মানুষ বলছেন, নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে রিকশা ও ভ্যান চালিয়ে আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখানো হচ্ছে। এটি বাস্তবায়নে পুলিশকে কঠোর হতে হবে। তা না হলে সড়কে শৃঙ্খলা ফিরবে না। ঢাকা শহরের প্রধান সড়কগুলোতে রিকশা চলাচল বন্ধের সিদ্ধান্তে কর্তৃপক্ষকে অটল থাকার অনুরোধ এসব সাধারণ মানুষের।

নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও কেন প্রধান সড়কে রিকশা চালাচ্ছেন, এমন প্রশ্নের জবাবে রিকশাচালক মর্তুজার সোজাসাপ্টা জবাব, এতো নিষেধাজ্ঞা বুঝি না। পেটে ভাত না থাকলে রাস্তায় নামতে হবে। এতে নিষেধাজ্ঞায় কাজ হবে না।

আরেক রিকশা চালক শফিউল্লাহ বলেন, গলিতে রিকশা চালিয়ে রিকশার ভাড়া ও বাসা ভাড়া পরিশোধ করাই দায়, পেট চালানো তো দূরের কথা।

পথচারী শফিকুল ইসলাম বলেন, সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করলে দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। সাধারণ মানুষ কোনোভাবেই চায় না প্রধান সড়কে রিকশা চলুক।

তিনি বলেন, রিকশা চলাচলের কারণে ১০ কিলোমিটারের দূরত্বেই দেখা গেছে দুই তিন ঘণ্টা শেষ। সড়কে গণপরিবহনের গতি বাড়াতে রিকশা বন্ধের বিকল্প নেই।

এ বিষয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (ট্রাফিক) মফিজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, প্রধান সড়কে রিকশা চলাচল বন্ধের দায়িত্ব শুধু পুলিশের একার নয়। পুলিশ ও সিটি করপোরেশন সম্মিলিতভাবে এটি বাস্তবায়ন করবে। কিন্তু সিটি করপোরেশন যদি সমন্বয় করে একসঙ্গে কাজ না করে তাহলে তো সেটা বাস্তবায়ন কঠিন।

সড়কে এখনও রিকশা চলাচল করছে, এ ব্যাপারে পুলিশ কী পদক্ষেপ নেবে- এমন প্রশ্নের জবাবে এই পুলিশ কর্মকর্তা ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলার পরামর্শ দেন। বাংলানিউজ

এ জাতীয় আরও খবর

আইয়ুব বাচ্চুকে হারানোর এক বছর

তিলের খাজা তৈরির রেসিপি

বার্সেলোনা থেকে এল ক্লাসিকো সরিয়ে ফেলার প্রস্তাব

গ্রামীণফোনের সাড়ে ১২ হাজার কোটি টাকা পাওনা আদায়ে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা

নারায়ণগঞ্জে ভুল চিকিৎসায় নবজাতকের মৃত্যু

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মর্টারশেল উদ্ধার, নিস্ক্রিয় করলো সেনাবাহিনী

কাভার্ডভ্যান চাপায় ট্রাফিক সার্জেন্ট নিহত

ইলিশ ধরা নিয়ে গোলাগুলি, বিএসএফ সদস্য নিহত

নানা অভিযোগ : কাউন্সিলর পদ হারালেন সাঈদ

এফডিসিতে সমর্থকদের ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না, মৌসুমীর অভিযোগ

আবরারের ছোট ভাই ফাইয়াজ কুষ্টিয়া সরকারী কলেজে ভর্তি হলেন

টি-টোয়েন্টি সিরিজ : দলে ফিরলেন আরাফাত সানি ও আল আমিন