মঙ্গলবার, ১৬ই জুলাই, ২০১৯ ইং ১লা শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ধরলা, ব্রহ্মপুত্রের, তিস্তা নদীরপানি বপিদসীমা অতিক্রম : ৪ শতাধিক চরগ্রামের নিন্মাঞ্চল প্লাবিত

news-image

শাহনাজ পারভীন,কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি : কুড়িগ্রামে অবিরাম বর্ষণ ও উজানের ঢলে নদ-নদীতে কয়েকদিন যাবত পানি বাড়ছে। পানি দ্রুত গতিতে বাড়তে থাকায় ধরলা,ব্রহ্মপুত্রের, তিস্তা বিপদসীমা উপর দিয়ে প্রবাহতি হচ্ছে। ও নুনখাওয়া নদীর পানি বিপদসীমা ছুই ছুই করছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় পানি উন্নয়ন বোর্ড।

এদিকে পানি বাড়ায় চরাঞ্চলের ৪ শতাধিক গ্রামের নিন্মাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ড সুত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘন্টায় শুক্রবার দুপুরে পর্যন্ত ধরলা নদীর পানি ২৬ দশমিক ৫০ সে.মি, ব্রহ্মপুত্রের চিলমারী পয়েন্টে ২৩ দশমিক ৭১ সে.মি. ও নুনখাওয়া পয়েন্টে ২৬ দশমিক ২০ সে.মি. এবং তিস্তায় ২৯ দশমিক ১০ সেন্টিমিটিার। নিমজ্জিত হয়েছে নিচু এলাকার বীজতলা, ভুট্রা ও সবজির ক্ষেত। কুড়িগ্রাম সদর, ফুলবাড়ী, নাগেশ^রী, রাজারহাট, উলিপুর, চিলমারী ও রৌমারী উপজেলার শতাধিক চরগ্রামের নিচু এলাকা প্লাবিত হয়েছে।

কুড়িগ্রাম সদরের চর যাত্রাপুর গ্রামের মকবুল ও সদরের ওয়াবদা এলাকার এনামুল জানান, ব্রহ্মপুত্রের সবকটি চরের নিচু এলাকার ফসল নিমজ্জিত হয়েছে। ঘর-বাড়িতে পানি ঢুকছে। এদিকে পানি বাড়ার সাথে সাথে নদ-নদীর ভাঙন তীব্ররুপ নিচ্ছে।

কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো: আরিফুল ইসলাম জানান, ধরলা, ব্রহ্মপুত্রের,তিসতা বিপদসীমা উপর দিয়ে প্রবাহতি হচ্ছে ও নুনখাওয়া নদীর পানি বিপদসীমা ছুই ছুই করছে। তিনি আরো জানান, ঝুঁকিপূর্ণ বাঁধগুলো নজরদারীর মধ্যে রাখা হয়েছে এবং ভাঙন রোধে প্রয়োজনীয় জিও ব্যাগ প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

এ জাতীয় আরও খবর