মঙ্গলবার, ২৩শে জুলাই, ২০১৯ ইং ৮ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

গান্ধী নন, প্রথম ‘ভারত ছাড়ো’ শ্লোগান এক মুসলিম নেতার

news-image

ভারতের জাতির পিতা খ্যাত মহাত্মা গান্ধী ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনের অত্যতম নেতৃত্বদানকারী। পারিবারিক নাম মোহনদাস করমচাঁদ গান্ধী হলেও মহাত্মা গান্ধী নামেই তিনি সমধিক পরিচিত। প্রভাবশালী এই আধ্যাত্মিক নেতা দেশটিতে সত্যাগ্রহ আন্দোলনেরও প্রতিষ্ঠাতা।১৯৩০ সালে গান্ধী ভারতীয়দের লবণ করের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে ৪০০ কিলোমিটার (২৪৮ মাইল) দীর্ঘ ডান্ডি লবণ কুচকাওয়াজে নেতৃত্ব দেন, যা ১৯৪২ সালে ইংরেজ শাসকদের প্রতি সরাসরি ‘ভারত ছাড়ো’ আন্দোলনের সূত্রপাত ঘটায়।

এই আন্দোনটি ছিল একটি আইন অমান্য আন্দোলন। যেটি ১৯৪২ সালের ৯ আগস্ট থেকে ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনে মহাত্মা গান্ধীর দ্বারা চালিত হয়েছিল। ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস দাবি করে একটি গণপ্রতিবাদ যেটিকে গান্ধী উল্লেখ করেন ব্রিটিশদেরকে ‘ভারত ছাড়ার’ একটি দাবি হিসেবে। ১৯৪২ সালের ৮ আগস্ট গোয়ালিয়ার ট্যাঙ্ক ময়দানে তিনি এই উদ্দেশ্যে ভাষণে বলেন ‘করেঙ্গে নয় মরেঙ্গে’।

কিন্তু ভাষণে ‘ভারত ছাড়ো’ কথাটি গান্ধীর মুখ দিয়ে উচ্চারিত হলেও ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনে ‘ভারত ছাড়ো’ (Quit India) এই স্লোগানটি প্রথম দিয়েছিলেন একজন মুসলিম। তিনি আর কেউ নন। তৎকালীন কংগ্রেস নেতা ইউসুফ মেহের আলী। পরবর্তীকালে এই স্লোগানই ব্রিটিশদের বুকে কাঁপুনি ধরিয়েছিল।

ইতিহাসবেত্তাদের মতে, ‘ভারত ছাড়ো’ আন্দোলন শুরুর কিছুদিন আগে মুম্বাইয়ে গান্ধীর ঘনিষ্ঠদের নিয়ে কংগ্রসের এক বৈঠক হয়। সেই বৈঠকেই ‘ভারত ছাড়ো’ শব্দ দুটি প্রথম ব্যবহার করেছিলেন মেহের আলী। তখন তিনি মুম্বাইয়ের মেয়র ছিলেন।

ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়ে আটবার কারাগারে নিক্ষিপ্ত হওয়া ইউসুফ মেহের আলী গান্ধীর সঙ্গে ১৯৪২ সালের ৯ আগস্টও গ্রেফতার হয়েছিলেন। এর চার বছর পর ১৯৪৬ সালে তিনি কারামুক্ত হন ও স্বাধীন ভারতে এমএলও হন। ১৯৫০ সালে মুম্বাইয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করা মেহের আলী ছিলেন কংগ্রেস সোশালিস্ট পার্টির প্রতিষ্ঠাতা।

‘ভারত ছাড়ো’ শ্লোগানটি নিয়ে কে গোপালস্বামীর লিখা ‘Gandhi and Bombay’ নামক গ্রন্থে বলা হয়েছে, পরাধীন ভারতের শেষ কয়েকটা বছর এই ‘ভারত ছাড়ো’ স্লোগানটি জনমনে ব্যাপক তোলপাড় তুলেছিল। শান্তিকুমার মোরারজির রেকর্ড অনুসারে গান্ধী তার সহকর্মীদের বলেছিলো স্বাধীনতার জন্য শ্রেষ্ঠ স্লোগান তৈরি করতে৷ প্রথমে একজন করেছিলেন ‘বেরিয়ে যাও’(‘Get out’)। কিন্তু গান্ধীর পছন্দ না হওয়ায় রাজাগোপালাচারি বলেছিলেন ‘অপসারণ অথবা প্রত্যাহার’ (Retreat’ or ‘Withdraw)। গান্ধীর সেটাও পছন্দ হয়নি। তখন ইউসুফ মেহের আলী উদ্ভাবন করেছিলেন ‘ভারত ছাড়ো’ শ্লোগানটি। যেটিকে গান্ধী সাদরে গ্রহণ করেছিলেন।’

এ জাতীয় আরও খবর

বরগুনা হাসপাতাল থেকেই ফাঁদে মিন্নির পরিবার

তিন মাথা নিয়ে বেঁচে আছে সেই শিশু, অবাক চিকিৎসকরা

ছেলেধরা সন্দেহে গণপি’টুনি, পরে জানা গেল ছিঁচকে চোর

বিয়ের আসরে হঠাৎ হাজির ট্রাম্প, চুম্বন করলেন কনেকে

মিঠুন-মুশফিক ঝড়ে বড় জয় বাংলাদেশের

এরশাদের শূন্য আসন ধরে রাখা অস্তিত্বের লড়াই : যোগ্য প্রার্থীর সন্ধানে জাতীয় পার্টি

রংপুর মহানগর যুবলীগের নবনির্বাচিত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বঙ্গবন্ধু ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ

যুক্তরাজ্যের নতুন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন

রংপুরে ট্রাক চাপায় গণপাঠাগারের কর্মী নিহত

লিভারের ক্ষতি করে যেসব অভ্যাস

১৩৩টি গ্রামে তিন মাসে একটিও কন্যাসন্তান জন্মায়নি!

শৈলকুপায় সেচখালে ঘন জঙ্গল পাড়ের মাটি কেটে রাস্তা নির্মান