সোমবার, ১৬ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং ১লা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

কসবায় ছাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষনের অভিযোগ ॥ দুইজন গ্রেপ্তার

news-image

নাজমূল হক সজল ,কসবা প্রতিনিধি : ব্রা‏‏হ্মণবাড়িয়ার কসবায় সপ্তম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে (১৩) জোরপূর্বক ধর্ষনের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় গত শুক্রবার রাতে ওই ছাত্রী বাদী হয়ে তিন জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। এ ঘটনায় পুলিশ দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছেন। পুলিশ ওই ছাত্রীকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য গত শনিবার সকালে ব্রা‏‏হ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছেন। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো, কসবা পৌর এলাকার ইমামপাড়া এলাকার শেখধন মিয়া (২৩) এবং কৃষ্ণপুর এলাকার সুমন মিয়া (২২)। গ্রেপ্তারকৃতদের গত শনিবার সকালে ব্রা‏হ্মণবাড়িয়া বিজ্ঞ আদালতর মাধ্যম জল হাজত পাঠানা হয়ছ।

মামলার এজাহার ও ¯ানীয় সূত্র জানা গছ, ওই ছাত্রী ¯ানীয় একটি মাদ্রাসার সপ্তম শ্রণীর শিক্ষার্থী। মাদরাসায় আসা যাওয়ার পথ তাক পর এলাকার গুরুহিত গ্রামর রনি মিয়া (২২) প্রায়ই উত্ত্যক্ত করত। গত ২০ জুলাই ওই শিক্ষার্থী মাদ্রাসার যাওয়ার জন্য তার বাড়ি থক বর হয়। নায়াপাড়া মিরপুকুরপাড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়র সামন গল রনি মিয়া তাক জারপূর্বক একটি সিএনজি চালিত অটারিক্্রা তুল নিয় যায়। পর তাক গাপীনাথপুর এলাকার বড়ঠুডা গ্রাম নিয় যায়।  সখান একটি বাড়িত আটক রখ ওই ¯ুল ছাত্রীর ইছার বিরুদ্ধ শখধন ও সুমন মিয়ার সহযাগীতায় রনি মিয়া  ৬ দিন তাক ধর্ষণ কর। ৬ দিন পর রনি মিয়া ওই মাদ্রাসা ছাত্রীক গত ২৫ জুলাই গভীর রাত তাদর বাড়ির সামন ফল যায়। এ ঘটনায় ওই ছাত্রী বাদী হয় গত শুক্রবার রাত রনি মিয়াক প্রধান আসামী কর তিনজনর বিরুদ্ধ একটি ধর্ষনর মামলা দায়র করছন। পুলিশ মামলার দুই নং আসামী শখধন মিয়া ও ৩ নং আসামী মা. সুমন মিয়াক গ্রপ্তার করলও এক নং আসামী রনি মিয়া পলাতক।

কসবা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মা. আসাদুল ইসলাম বলন, মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষনর ঘটনায় থানায় মামলা হয়ছ। পুলিশ দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছেন। ওই ছাত্রীকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য ব্রা‏হ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।