রবিবার, ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং ৭ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

দামুড়হুদা সীমান্তে গরু ব্যবসায়ীকে হত্যা করেছে বিএসএফ

news-image

নিউজ ডেস্ক।।  চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা সীমান্তে আবদুল্লাহ নামে বাংলাদেশি এক গরু ব্যবসায়ীকে হত্যা করেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)। মঙ্গলবার রাতে ঠাকুরপুর সীমান্তের বাংলাদেশের অভ্যন্তরে দোহারমাঠের ৮৯ নম্বর পিলারের কাছে এ ঘটনা ঘটে। বুধবার সকালে নিহতের স্বজনরা ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে নিজ বাড়িতে নিয়ে গেছে। নিহত আবদুল্লাহ দামুড়হুদা উপজেলার সীমান্তবর্তী ঠাকুরপুর গ্রামের গোলাম রসুলের ছেলে।

জানা গেছে, মঙ্গলবার রাতে আবদুল্লাহসহ ৫-৭ জন গরু ব্যবসায়ী ভারতে গরু আনতে যান। এসময় বিএসএফ বাংলাদেশি গরু ব্যবসায়ীদের ধাওয়া করে। এক পর্যায়ে বিএসএফ সদস্যরা আবদুল্লাহকে ধরে ফেললেও অন্যরা পালিয়ে বাংলাদেশের সীমান্তের মধ্যে চলে আসেন।

সকালে আবদুল্লাহর সহযোগীরা বিষয়টি তার পরিবারের কাছে জানান। সকাল ৮টার দিকে বিএসএফ সদস্যরা আবদুল্লাহর কাছে থাকা মোবাইল ফোন দিয়ে তার পরিবারের কাছে জানায়, লাশ সীমান্তের ৮৯ নম্বর পিলারের পাশে দোহার মাঠে আছে।

আবদুল্লাহর পরিবারের সদস্যরা মোবাইলে ফোনে বিষয়টি জানার পর স্থানীয়দের সঙ্গে নিয়ে দোহার মাঠে এসে দেখে রক্তাক্ত লাশ পড়ে আছে। পরিবারের সদস্যরা লাশটি উদ্ধার করে ঘটনাস্থল থেকে নিজ বাড়িতে নেয়।

চুয়াডাঙ্গার বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি-৬) পরিচালক সাজ্জাদ সরোয়ার পিএসসি জানান, সীমান্তে বাংলাদেশি গরু ব্যবসায়ীকে হত্যা করা হয়েছে বলে শুনেছি। গুলি করে না কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে তা নিশ্চিত নয়। খোঁজ-খবর নেওয়ার জন্য ঘটনাস্থলে বিজিবির সদস্যরা গিয়েছে।

এ জাতীয় আরও খবর

১০০ বছর পরে যে ফুল ফোটে

বিয়েতে রানী ভবানীর ছিল তিন শর্ত

৫০ টাকার লোভ দেখিয়ে ভাতিজিকে ধ’র্ষণ

একাধিক প্রেমিক ছিলো রানুর জীবনে, ফাঁস করলেন পরিচালক

সাবেক মন্ত্রীকে নিয়ে হোটেলে ছিলেন, স্বীকার করলেন সানাই

প্রধানমন্ত্রীর হুঁশিয়ারির পরেও স্বাস্থ্য কেন্দ্রে যোগদান করেনি ৬ ডাক্তার!

‘ইরানের বিরুদ্ধে যুদ্ধে জড়ালে সৌদি আরব ও আমিরাত ধ্বংস হয়ে যাবে’

যুদ্ধের শঙ্কার মধ্যেই ইরান-রাশিয়া-চীনের যৌথ নৌমহড়া

যে কারণে ২০ গানম্যান নিয়ে রাজকীয় ভঙ্গিতে চলতেন জিকে শামীম

বিসিএস উত্তীর্ণের দিন এলো ক্যান্সারের খবর!

বাসা ছেড়ে দেয়ায় স্বামীকে পি’টিয়ে স্ত্রীকে ধ’র্ষণ

জব্দ করা কোটি কোটি টাকা বেকারদের কর্মসংস্থানে ব্যয় করার প্রস্তাব রাশেদা রওনকের