শুক্রবার, ১৮ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং ৩রা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সরাইল হাসপাতাল : ডেঙ্গু নিধনের ১ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

news-image

আরিফুল ইসলাম সুমন, সরাইল : সরাইল ৫০ শয্যা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডেঙ্গু নিধনের জন্য স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে এক লাখ টাকা বরাদ্দ এসেছে। এ টাকা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ডেঙ্গু নিধন বাবদ খরচ না করে হাসপাতালের কর্মচারীদের দিয়ে কাজ করিয়ে সমুদয় টাকা আত্মসাৎ করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, ডেঙ্গু থেকে বাঁচার জন্য সারা দেশের মতো সরাইল উপজেলা হাসপাতালের ভেতরে-বাইরে ময়লা-আবর্জনা পরিষ্কার করার জন্য গত ২৯ জুলাই স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে একটি পরিপত্রে এক লাখ টাকা বরাদ্দ আসে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অদ্যবধি হাসপাতালের ভেতরে কিংবা বাইরে কোনো ধরনের মশা নিধনের ওষুধ ছিটায়নি।

হাসপাতালের কর্মচারীরা বলছেন, ডেঙ্গু নিধনের টাকার ব্যাপারে তারা কিছুই জানেন না। এ টাকা কিভাবে খরচ করা হয়েছে তা তাদের জানা নেই। সরকার ডেঙ্গু নিধনের জন্য টাকা দিল কিন্তু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ভেতরে থাকা একটি ড্রেন বা নালা পর্যন্ত পরিষ্কার করেনি।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার অফিসের একজন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বলেন, ডেঙ্গু রোগীর চিকিৎসার জন্য কিছু ওষুধ কেনা হয়েছে। কিন্তু দু’একজন রোগী এসেছিলেন। আমরা তাৎক্ষণিকভাবে জেলা সদর হাসপাতালে পাঠিয়ে দিয়েছি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হাসপাতালের এক পরিচ্ছন্ন কর্মী বলেন, আমরা পরিচ্ছন্ন কর্মীরা কয়েকদিন দুপুরের পর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত হাসপাতালের ভেতরে ও বাইরে ময়লা-আবর্জনা পরিষ্কার করলাম কিন্তু হাসপাতাল থেকে আমাদের কোনো টাকা পয়সা দিল না। আমরা কিছু বাড়তি আয় আশা করেছিলাম।

বুধবার (১৮ সেপ্টেম্বর) হাসপাতালের অফিস সহকারী কাম ক্যাশিয়ার মোঃ ওমর ফারুক বলেন, ডেঙ্গু নিধন ও পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার জন্য সরকার এক লক্ষ টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন। সেই বরাদ্দের টাকা উত্তোলনও করা হয়েছে। হাসপাতালের পরিচ্ছন্ন কর্মীদের দিয়ে মাঝেমধ্যে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার কাজ করানো হয়। বাইরের শ্রমিক দিয়েও এই পরিস্কারের কাজ করানো হবে।

হাসপাতালের উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার মোঃ মাহবুবুর রহমান (বকুল) সাংবাদিকদের জানান,অদ্যবধি এডিস মশা নিধনে কোন প্রকার স্প্রে করা হয়নি হাসপাতালের ভেতরে কিংবা বাহিরে। পরিস্কার পরিছন্নতার কাজ সঠিকভাবে করা দরকার।

এ ব্যাপারে সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. নোমান মিয়া বলেন, উপজেলা হাসপাতালে যে এক লক্ষ টাকা বরাদ্দ এসেছে, তা ডেঙ্গু নিধন নয়, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা বাবদ। আমরা এ পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার কাজ অব্যাহত রেখেছি।

এ জাতীয় আরও খবর

আইয়ুব বাচ্চুকে হারানোর এক বছর

তিলের খাজা তৈরির রেসিপি

বার্সেলোনা থেকে এল ক্লাসিকো সরিয়ে ফেলার প্রস্তাব

গ্রামীণফোনের সাড়ে ১২ হাজার কোটি টাকা পাওনা আদায়ে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা

নারায়ণগঞ্জে ভুল চিকিৎসায় নবজাতকের মৃত্যু

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মর্টারশেল উদ্ধার, নিস্ক্রিয় করলো সেনাবাহিনী

কাভার্ডভ্যান চাপায় ট্রাফিক সার্জেন্ট নিহত

ইলিশ ধরা নিয়ে গোলাগুলি, বিএসএফ সদস্য নিহত

নানা অভিযোগ : কাউন্সিলর পদ হারালেন সাঈদ

এফডিসিতে সমর্থকদের ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না, মৌসুমীর অভিযোগ

আবরারের ছোট ভাই ফাইয়াজ কুষ্টিয়া সরকারী কলেজে ভর্তি হলেন

টি-টোয়েন্টি সিরিজ : দলে ফিরলেন আরাফাত সানি ও আল আমিন