শুক্রবার, ২২শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং ৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ড্রাগন গাছের উপকারিতা

news-image

নিউজ ডেস্ক : দূর থেকে দেখলে মনে হয় সারি সারি বিশালাকার ছাতা মাটিতে পুঁতে রাখা হয়েছে। আসলে এটি একটি গাছ। যার নাম ড্রাগন ট্রি।

বছরের পর বছর ধরে নাকি ড্রাগনের রক্ত বহন করে চলেছে এই গাছগুলোই। সে কারণে এদের বলা হয় ড্রাগন ট্রি। আটলান্টিক মহাসাগরের মাঝে ক্যানারি দ্বীপে মূলত এদের দেখা যায়।

তবে কেন এই গাছটিকে ড্রাগন ট্রি বলা হয়? এর পেছনে একটি কাহিনী লুকিয়ে রয়েছে।

গ্রিক পুরান অনুযায়ী জানা যায়,হারকিউলিসকে হেসপেরাইডস-এর বাগান থেকে তিনটে সোনার আপেল ফিরিয়ে নিয়ে আনতে হত। এই আপেল পাহারা দিচ্ছিল শতমুখী ড্রাগন ল্যান্ডন।

ড্রাগনকে না মেরে আপেল ফিরিয়ে আনা অসম্ভব ছিল। হারকিউলিসের সঙ্গে যুদ্ধে ড্রাগনের মৃত্যু হয়। ড্রাগনের গাঢ় লাল রক্ত ছড়িয়ে পড়ে চারিদিকে। সেই রক্ত থেকেই নাকি এই ড্রাগন ট্রির জন্ম।

তবে এই গাছ থেকে যা ঝরে তাকে রক্ত বলা হলেও আসলে তা হলো রেজিন। পরীক্ষা করে উদ্ভিদ বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, ওটা আসলে রেজিন। গাছের এক ধরনের উপক্ষার।

গাছের এই রক্তবর্ণ উপক্ষারের উপকারিতা অনেক। এর ঔষধি গুণ রয়েছে। প্রাচীন কালে এই ‘রক্ত’ দিয়েই পেটের নানা রোগের ওষুধ তৈরি করা হতো।তা ছাড়া বিভিন্ন রঞ্জক হিসাবে, টুথপেস্ট তৈরি করতেও কাজে লাগানো হত।

এই গাছের কোনও বর্ষবলয় তৈরি হয় না। গাছের কাণ্ডের সংখ্যা দেখে এর বয়স নির্ধারণ করা হয়।

এ জাতীয় আরও খবর

আবরার হত্যার ঘটনায় ২৬ শিক্ষার্থীকে আজীবন বহিষ্কার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নিখোঁজ কৃষকের লাশ নদী থেকে উদ্ধার

চাকুরী রাজস্বখাতে নেয়ার দাবীতে রংপুরে সমবায় সমিতির কর্মীদের বিভাগীয় সমাবেশ

রংপুরে ৪৮ তম স্বশস্ত্র বাহিনী দিবস উদ্যাপিত

নবীনগরে ইয়াবা সম্রাট আতিক গ্রেফতার

ভুটান ঢুকলেই ৫৬০০ টাকা বাংলাদেশিদের প্রতিদিন গুনতে হবে!

মানসিক ভারসাম্যহীন শাহাবুদ্দিন হারিয়ে গেছে

ইউনিয়ন পরিষদের কার্যক্রমে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে : রংপুরের ডিসি

নাসিরনগরে নতুন ইউএনও’র যোগদান, ফুল দিয়ে বরণ

নাসিরনগরে বিশ্ব এন্টিবায়োটিক সচেতনতা সপ্তাহ পালিত

যুবলীগের নতুন নেতৃত্ব, যারা আছেন আলোচনায়

মরুর বুকে এগিয়ে চলছে বাংলা টাইগার্স