বুধবার, ২৪শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং ১১ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

মানুষের মল হাতে মঞ্চে বিল গেটস!

news-image

বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি বিল গেটস ঘটিয়েছেন এক অবাক কাণ্ড। চীনে একটি সম্মেলনে কৌটোয় করে মানুষের মল নিয়ে হাজির হয়েছেন তিনি। তার এমন কাণ্ডে গোটা বিশ্বে হইচই পড়ে গেছে।মঙ্গলবার (৬ নভেম্বর) চীনের বেজিংয়ে ‘রিইনভেন্ট টয়লেট এক্সপো’ নামে একটি সম্মেলনে কৌটোয় করে মানব মল নিয়ে উপস্থিত হন।দেখা গেছে, হাতে ছোট একটি কৌটো। তার মধ্যে খুবই চেনা চেনা একটি বস্তু। তাই বলে দেশ-বিদেশের তাবড় শিল্পপতি এবং সরকারি আধিকারিকদের সামনে বিল গেটস যে এক কৌটো মানব মল নিয়ে হাজির হবেন, তা কে জানত!

আসলে বিল গেটস এমনই। মূলত বিল গেটস উন্নয়নশীল দেশগুলিতে যথাযথ শৌচালয়ের অভাবের সমস্যাকে তুলে ধরার জন্যই এভাবে মানব মল নিয়ে মঞ্চে হাজির হন।তিনি সব সময় সচেতনতা ছড়ানোর জন্য এভাবেই মানুষকে চমকে দিতে পছন্দ করেন। তাই নিজের সঙ্গে নিয়ে আসা মল দেখিয়ে তিনি উপস্থিত দর্শকদের বোঝান।তিনি দর্শকদের বোঝান, যে উন্মুক্ত জায়গায় শৌচকর্ম করলে তার মধ্যে থাকা জীবাণুর শিকার হয় বাচ্চারা। ছড়ায় মারাত্মক সব অসুখ।

২০১১ সাল থেকেই বিল এবং মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে বিশ্ব জুড়ে নতুন প্রজন্মের শৌচালয় তৈরি করার জন্য বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়কে বিপুল পরিমাণ ঋণ দিচ্ছেন। যাতে করে মানব মল থেকে সার, জ্বালানি, পরিশুদ্ধ জল তৈরি করা যায়।চীনের ‘রিইনভেন্ট টয়লেট এক্সপো’ সম্মেলনে আলোচনার বিষয়টিও ছিল সেই সংক্রান্ত। আগামী দিনে এই ধরনের কাজে আরও প্রায় ২০০ মিলিয়ন ডলার খরচ করতে চান বলে জানিয়েছে বিল এবং মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন।এর আগে ২০০৯ সালে একবার ক্যালিফোর্নিয়ায় আয়োজিত একটি আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে সভাস্থলে এক ঝাঁক মশা ছেড়ে দিয়েছিলেন বিল গেটস। আর তখন মশার ঝাঁক দেখে দর্শকরা যখন ব্যতিব্যস্ত হয়ে পড়ে।

তাদের আশ্বস্ত করে তখন বিল গেটস বলেন, এই মশাগুলি কামড়ালেও কোনও ক্ষতি হবে না। সে সময় ম্যালেরিয়া নিয়ে সচেতনতা ছড়াতে এই বার্তা দিয়েছিলেন বিশ্বখ্যাত এ শিল্পপতি।