শনিবার, ২৩শে জুন, ২০১৮ ইং ৯ই আষাঢ়, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

কিভাবে ঈদ উৎসব পালন করেন এই তারকারা?

news-image

বিনোদন ডেস্ক।। আসছে ঈদ। আনন্দে মাতবে সবাই। অন্যদের মতো ঈদ নিয়ে নানা পরিকল্পনা কষছেন তারকারাও। তাদের ভাবনা নিয়ে এ আয়োজন

শাকিব খান: রুপালি পর্দার সবচেয়ে জনপ্রিয় নাম শাকিব খান। তিনি বলেন, ‘আমি একটু ঘরকুনো ছিলাম ছোটবেলায়। তবে একমাত্র ঈদের দিনটিতেই আমার যেন ডানা গজাত। সারাদিন আমি বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরে বেড়াতাম। ঘরের কেউ আমাকে খুঁজেই পেত না। নতুন কাপড় পরে, বন্ধুদের সঙ্গে বাড়ি বাড়ি ঘুরে বেড়াতাম। মূল উদ্দেশ্যই থাকত কার কাছ থেকে কত সেলামি পাওয়া যায়। ভালো লাগত। আর দিন শেষে মনে মনে খুব কান্না পেত, ঈদের দিনটি এত তাড়াতাড়ি কেটে গেল এই ভেবেই। কেন শেষ হলো? সারাক্ষণ নিজেকে এই প্রশ্নই শুধু করে যেতাম। সেই দিনগুলোকে এখনো খুব মিস করি। কিন্তু এখনকার ঈদ একেবারেই বিপরীত। কাজ না থাকলে সারাদিন ঘুমিয়েই কেটে যায়। আর কিছুই না। ওই দিনটাতে ঠিকমতো খাওয়া-দাওয়াও হয় না।’

মোশাররফ করিম: ছোটবেলা থেকে প্রায় প্রতিবছরই গ্রামে ঈদ পালন করেন মোশাররফ করিম। কিন্তু কাজের চাপে এখন আর গ্রামে যেতে পারেন না। ঈদের দিন সকাল পর্যন্ত কাজ করতে হয়। ঈদের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘ঈদের আনন্দটা আসলে ছোটবেলাতেই। বড় হয়ে ঈদের কোনো আনন্দই অনুভূত হয় না। শুধু একটা দিন কাটানো ছাড়া আর কিছুই বিশেষ উপলব্ধি নেই। তবে হ্যাঁ, এই দিনটাতে আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে আড্ডা, দাওয়াত এগুলো বেশ ভালো লাগে। পরিবারের সঙ্গে এক অন্য রকম সময় কাটানো হয়। ঈদের আনন্দটা মূলত ছোটদের জন্যই। আমরাও এই ঈদটাকে আনন্দঘন বা সফল বলে মনে করি, যখন আমাদের সন্তানরা আনন্দের সঙ্গে ঈদটা কাটাতে পারে। তাদের খুশিটাই এখন মুখ্য। ঈদ ঢাকায় নিজের বাসায় বিশ্রামেই কেটে যাবে।’

অপু বিশ্বাস : গ্রামের বাড়ি এবং ঢাকায় প্রিয় মানুষদের সঙ্গে ঈদ উৎসবের আনন্দ ভাগ করে নেন অপু বিশ্বাস। অপু বলেন, ‘এবারো ঈদে মুক্তির তালিকায় আমার অভিনীত ছবি আছে। ছবিটি দেখে যদি দর্শকের ঈদ আনন্দ বাড়ে, তবেই আমি সার্থক।’

তিশা : চটপটে স্বভাবের তিশা। ভিন্নভাবে অভিনয় করে দর্শকদের মনে জায়গা নিয়েছেন। খুব সহজেই যে কোনো বিষয় সাবলীলভাবে উপস্থাপন করতে পারেন তিনি। ঈদ ভাবনা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ছোটবেলায় ঈদের সময় অনেক ঘুরতাম। কিন্তু এখন আর সেভাবে ঘোরা হয় না। আসলে পারি না। আমার কাজের চাপ তো আছেই, ফারুকীরও একই অবস্থা। একসঙ্গে দুজনের অবসর খুব কমই মেলে। এবারের ঈদ ঢাকাতেই করব। সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা।’

ন্যানসি : পরিবারের সঙ্গে ময়মনসিংহে ঈদ করবেন সংগীতশিল্পী ন্যানসি। ন্যানসি বলেন, ‘সারা বছর ঢাকায় থাকলেও ঈদ এলে বাড়ির টানে ছুটে আসি, ঈদে বাড়ি আসতেই হবে। বাড়িতে ঈদ করার আনন্দই আলাদা। ঈদের দিন আলাদাভাবে কোনো পরিকল্পনা নেই। আত্মীয়-স্বজন আসেন বাড়িতে। তাদের সঙ্গেই মজা করব।

বুবলি : ঈদের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে বুবলি বলেন, ‘একটা সময় সারা বছর ধরে ঈদের জন্য অপেক্ষা করতাম। এখনো অপেক্ষা করি। তবে এই অপেক্ষার কারণের পরিবর্তন হয়েছে অনেক। আগের ভাবনাটা ছিল, কবে ঈদ আসবে, কবে সবাই মিলে একসঙ্গে আনন্দ করতে পারব। আর এখনো সেই ঈদের জন্য অপেক্ষায় থাকি, কিন্তু এখনকার কারণ হলো, ঈদে কয়টা ছবি মুক্তি পাবে, কোন চ্যানেলে কয়টা অনুষ্ঠান থাকছে এগুলো নিয়েই।’

Print Friendly, PDF & Email